সুুকুমার দাস (দিনাজপুর২৪.কম) পঞ্চগড় সদর উপজেলার হারিভাসা, মডেল যাতায়েত সড়কের পাইকানী নদীর উপর র্নিমিত সেতুটি র্দীঘদিন যাবত ভেঙ্গে পরে রয়েছে। ভাঙ্গা সেতুটি সরাতে না পারার কারনে ঐ নদীর উপর নতুন আবারো নতুন সাঁকো বানিয়ে চলছে ঐ এলাকার মানুষ পারাপারে ভেন রিক্সা ছাড়াও বড় ধরনের যানবাহন চলতে না পারায় ঐ এলাকার কৃষকরা অনেক দুরদিয়ে ঘুরে অন্য রাস্তা দিয়ে তাদের উৎপাদিত কৃষিপন্য হারিভাসা বাজার বা পঞ্চগড় জেলা শহরে পন্য নিয়ে আসতে হয়। সেতু তৈরি করতে পারছেনা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। এলাকার লোকজন স্থানীয় ভেন রিক্সার চালকরা চাঁদা তুলে ভাঙ্গা সেতুর উপর যাতায়াতের জন্য কাঠ বাঁস দিয়ে সাঁকো তৈরি করে যাতায়েত করছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বর্ষা এলে পানির ¯্রােতে সাঁকো ভেঙ্গে যায়। জানা গেছে হারিভাসা ইউনিয়নে পাইকানী গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে গেছে পাইকানী নদী। মূলত বর্ষায় এই নদী পানি প্রবাহ থাকলেও সুষ্ক মৌসমে এসে নদীটি একে বারে পানি শূণ্য হয়ে পরে। ঐ নদীর উপর দিয়ে মডেল হাট হয়ে পঞ্চগড় বাংলাবান্দা মহাসড়কে এসে সংযোগ হয়েছে একটি সড়ক। এই সড়কটি হারিভাসা চাকলাহাট, কামাত কাজল দীঘি, উমর খানা সহ কয়েকটি ইউনিয়নের মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম। প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে হাজারো মানুষ যাতায়াত করে। জন গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় হারিভাসা থেকে মডেল হাট পর্যন্ত বেহাল সড়কটি পাঁকা করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ১০ বছর আগে পঞ্চগড় চিনির কলের উদ্যোগে এই নদীর উপর একটি ছোট সেতু র্নিমান করা হয়। র্নিমানের ছয় বছরের মাথায় বর্ষার পানির ¯্রােতে সেতুটি দেবে যায় সেতুটি। এর পর থেকে স্থানীয়রা চাঁদা তুলে কাঠ ও বাঁশ তুলে সাঁকো র্নিমান করে যাতায়াত করছে। এই সাঁকোর উপর দিয়ে শুধু মাত্র খালি ভেন রিক্সা এবং মানুষ যাতায়াত করতে পারে। গত কয়েক বছর ধরে এভাবে চলে আসছে। এলাবাসীর দাবীর মূখে পুরাতন ভাঙ্গা সেতু সরিয়ে এখানে নতুন সেতু র্নিমানের উদ্যোগ নেয় পঞ্চগড় সদর উপজেলার এল.জি.ই.ডি। পুরাতন সেতুর সরিয়ে নেওয়ার জন্য ৩০ হাজার টাকায় সেতুটি একজন ঠিকাদারকে নিলামে দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি অনেক চেষ্টা করেও সেতুটি সরাতে পারেননি। তাই এখনো এই সেতু র্নিমানে কাজ পিছিয়ে আছে। বর্তমানে এই সেতুটি একটি মরণ ফাঁদের পরিনত হয়ে আছে। যে কোন সময়ে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে এলাকার মানুষের ধারনা।