সুকুমার দাস বাবু (দিনাজপুর২৪.কম)  পঞ্চগড়ে যেন ইজি বাইকের শহর। যানজটে নাকাল শহরবাসী। পঞ্চগড়ে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক গুলোতে প্রতিদিনই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। ব্যাটারি চালিত ইজি বাইকের কারণে যানজট হচ্ছে শহর। বৈধ ইজি বাইকের তিনগুনের বেশি অবৈধ ইজি বাইক এবং এর বাইরে প্রায় দুই হাজার ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ভ্যান চলছে। ফলে শহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে প্রতিদিনই যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। শহরবাসী/ পৌরসভার পক্ষ থেকে বিজয় দিবসের পরেই যানজটের নিরসন এবং অবৈধ ইজিবাইক ও অটো রিক্সা ভ্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা থাকলেও ডিসেম্বর মাস শেষ হলেও এর কোন প্রতিকার হচ্ছে না। যার কারণে প্রতিনিয়ত নাকাল দুর্ভোগে পঞ্চগড় শহরবাসি। ইজি বাইক মালিক শ্রমিকদের সংগঠনের কারণে এসব অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে পৌর কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিতে পারছে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। পঞ্চগড় পৌরসভা সূত্রে জানায় পঞ্চগড় শহরে চলাচলের জন্য পৌরসভা থেকে তিন হাজার ব্যাটারী পরিচালিত ইজি বাইকের লাইসেন্স দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। কোন ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ভ্যানের লাইসেন্স দেয়া হয়নি। জেলা ট্রাফিক সূত্র এবং পৌরসভা কর্তৃপক্ষের মতে বাস্তবে শহরে এখন আট থেকে নয় হাজার ইজিবাইক এবং প্রায় তিন হাজার ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা ভ্যান চলছে। এই বিপুল সংখ্যক অবৈধ ইজিবাইক ও অটোরিক্সা ভ্যানের চাপে প্রতিটি সড়কেই যানজট হচ্ছে। ট্রাফিক পুলিশ সূত্র জানায়, পঞ্চগড়ে বেশ কয়েকটি ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক ও অটোরিক্সা ভ্যানের দোকান রয়েছে। এসব দোকান থেকে প্রতিদিন গড়ে ২০টি করে ইজিবাইক ও অটো রিক্সা বিক্রি হচ্ছে। যার বেশির ভাগেই শহরের রাস্তায় আসছে। দীর্ঘ সময় লেগে যায় জট ছাড়াতে। প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে ছেড়ে আসা ইজিবাইক পঞ্চগড় শহরে এসে জটলা পাকিয়ে যানজটের সৃষ্টি করছে। বিশেষ করে পঞ্চগড় শেরে-ই-বাংলা পার্ক থেকে স্টেশন রোড, ট্রাক টার্মিনাল, ব্যারিস্টার বাজার, টুনিরহাট সড়ক দিয়ে এসব অবৈধ অটো রিক্সা ভ্যানের কারণে সড়কে যানজট ও জীবন হানীর মত ঘটনা ঘটেই চলেছে। শুধু এখানেই শেষ নয় শহরের রাস্তা গুলোতে যানবাহনে যত্রতত্র যাত্রী ওঠা-নামা ফুটপাত দখল রাস্তায় ধুলা এই সব কারণেই পথচারিদের চলাফেরার বেঘাত ঘটাছে। যার কারণেই প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনা সৃষ্টি হচ্ছে এবং সাধারণ জনগন রাস্তায় চলাচল করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়ছে।