সুকুমার বাবু (দিনাজপুর২৪.কম) পঞ্চগড়ের সদর উপজেলার গড়িনাবাড়ী ইউনিয়নের ফুটকিবাড়ী এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মাবলম্বীগণ খামানিডাঙ্গা শ্রী শ্রী লক্ষী মন্দিরে পূর্ব পুরুষ থেকে পুজা উপলক্ষে পুণিমাতে নীশি জাগরণের জন্য নাম কীর্ত্তন, রংপাচালি ও হুলি গান অনুষ্ঠান পালন করে আসছে। গত-১৩ই অক্টোবর ২০১৯ইং রবিবার থেকে হুলি গানের অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রতিবাদ সমাবেশ সুত্রে জানা গেছে, অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গত-১৮ অক্টোবর গড়িনাবাড়ী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ এর ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক, মোঃ আঃ লতিফ পুজা কমিটির কাছে  চাদা দাবি করে বলেন আপনারা প্রশাসনিক ভাবে অনুষ্ঠান করার জন্য তিন দিনের সময় পেয়েছিলেন, আপনাদের সময় শেষ, এখন আর অনুষ্ঠান করতে পারবেন  না। আর যদি অনুষ্ঠান করতে চান তাহলে আমাকে চাদা দিতে হবে।
পুলিশ সুপার মোঃ ইউসুফ আলী বিষয়টি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ মোঃ আক্কাস আহম্মদ কে অনুষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দিলে তিনি সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ লেলিনকে অনুষ্ঠানটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন। চেয়ারম্যান পুজা কমিটিকে বিষয়টি অবগত করলে অনুষ্ঠানটি বন্ধ করে রাখেন। এনিয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বী গণের মধ্যে ক্ষোপ ও প্রতিবাদ শুরু হয়। এ নিয়ে পুজা কমিটি সভাপতি শ্রী মহেশ্বর চন্দ্র ঘোষ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলামকে আঃ লতিফ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন এবং প্রতিবাদ সমাবেশর আয়োজন করেন। সমাবেশে উপস্থিত থেকে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত হিন্দু ধর্মাবলম্বীগণ আঃ লতিফের বিচার চেয়ে স্লোগান দেন এবং পদত্যাগের দাবি জানান। সমাবেশ আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ ইউনিয়ন সভাপতি মোঃ আমিনার রহমান, ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ লেলিন সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ।
এ দিকে গড়িনাবাড়ী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ এর ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ আঃ লতিফ পুজা কমিটির কাছে  চাদা দাবীর বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন তারা নিয়ম না মানার কারণে পুজা অনুষ্ঠানটি প্রশাসন বন্ধ করে দেয়। এতে আমার কিছু করার নেই।