সুকুমার বাবু দাস (দিনাজপুর২৪.কম) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের রেলপথ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট মো: নুরুল ইসলাম (সুজন) এমপি তার নির্বাচনী এলাকা পঞ্চগড় জেলায় কর্মরত সিভিল প্রসাশন, পুলিশ প্রসাশন, হাতে গুনা কয়েকজন  সাংবাদিক ও ইউনিয়ন, উপজেলা, পৌরসভার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মাঝে পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) ও হতদরিদ্র ৪২৬ টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। ১ মে, শুক্রবার সকাল ১১ টায় ময়দানদিঘী ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ত্রাণ বিতরণ প্রাক্কার্লে তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে যার যার অবস্থান থেকে উন্নয়ন কর্মকান্ড চালিয়ে যেতে হবে। কোন ক্রমেই কৃষিজাত কাঁচা পন্য যাতে নষ্ট না হয়, তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের সকল স্তরের কর্মকর্তাদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। কৃষিপন্য বাজারজাতকরনে রেলওয়ের মালবাহী ট্রেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচলে তার সরকার ইতিবাচক অবস্থানে। এ ব্যাপারে তিনি পঞ্চগড়ের রেলওয়ে কর্মকর্তারা যাতে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে যোগাযোগ করে সকল প্রকার ব্যবস্থা গ্রহন করেন এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রেলওয়ে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন বলেও তিনি জানান। ’ ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, পঞ্চগড় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, বোদা উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আলম টবি, ময়দানদিঘী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার প্রমুখ। এর আগেই মন্ত্রীর প্রাইভেট সেক্রেটারি (রাজনৈতিক) রাসেদ প্রধানের মাধ্যমে তঁার নির্বাচনী এলাকার বোদা ও দেবীগঞ্জ উপজেলার সকল সিভিল প্রসাশন, পুলিশ প্রসাশন ও জেলা প্রসাশন কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কর্মস্থলে পিপিই পেঁৗছে দেন। অপরদিকে পঞ্চগড় সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো: আমিরুল ইসলাম তার উপজেলা ও জেলা সদরে কর্মরত পঞ্চগড় প্রেসক্লাব, জেলা প্রেসক্লাবের সকল সদস্যসহ বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালের সাংবাদিকদের মাঝে গত ১৩ এপ্রিল থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত সাংবাদিকদের কাছে গিয়ে পিপিই প্রদান করেছেন। তেঁতুলিয়া উপজেলা সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ করেছেন তেঁতুলিয়া উপজেলার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মো: রেজাউল করিম শাহিন। দেবীগঞ্জ উপজেলার সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই বিতরণ করেন ৩ নং সদর দেবীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম ইমু। জেলা রিপোটার্স ক্লাবের সহ সাধারণ সম্পাদক, সুকুমার বাবু দাস দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, জেলা রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি ও সম্পাদক ব্যতীত  ক্লাবের আর কোন সাংবাদিকই কোন মহল থেকে করোনাকালীন সুরক্ষাসামগ্রী পায়নি অথচ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে গিয়ে পেশার দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে।জেলার আটোয়ারি উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাহিরুল ইসলাম জানান, ‘আটোয়ারি উপজেলা পঞ্চগড় জেলার পশ্চিম দক্ষিনের ভারত সীমান্ত ঘেঁষা। আমরা অত্যন্ত ঝুকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করছি। অথচ আমাদের সুরক্ষায় এযাবৎ কেউ এগিয়ে আসেনি।