সুকুমার দাস (দিনাজপুর২৪.কম)  পঞ্চগড়ে একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে চাঁদা না পেয়ে সরকারি রাস্তা কর্তন করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে একটি চক্র। এতে ঐ এলাকায় সাধারণ মানুষজনসহ যানবাহন চলাচল চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। রাস্তা কেটে প্রতিবন্ধকতায় ঐ এলাকায় জরুরী প্রয়োজনে এ্যাম্বুলেন্স বা ফায়ার সার্ভিসের গাড়ী প্রবেশের সুযোগও রাখা হয়নি। একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান থেকে চাঁদা না পেয়ে একজন শিক্ষকের নির্দেশে চলাচলের রাস্তা কেটে ফেলায় এলাকাবাসীর মধ্যে অসন্তোষ ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, পঞ্চগড় সদর উপজেলার ধাক্কামারা ইউনিয়নের ঢেমসীমারীতে একটি পোল্ট্রি ফার্ম স্থাপন করে কাজী ফার্ম লিমিটেড। প্রায় ৪ শতাধিক জনবল নিয়ে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে ফার্মটি সুনামের সহিত তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। পরিবেশ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের অনুমতি ও পরামর্শক্রমে ফার্মটি ঐ এলাকায় স্থাপন করা হয়েছে বলে কাজী ফার্মস গ্রুপ নিশ্চিত করেছে। কিছুদিন ধরে লাঙ্গলগাঁ গ্রামের মৃত. নজরুল ইসলামের ছেলে মোঃ শাহজাহান ফার্ম কর্তৃপক্ষের কাছে নানা অজুহাতে চাঁদা দাবী করে আসছে। প্রথমে তিনি এলাকার কিছু লোকজনকে নিয়ে পরিবেশ দূষণের অভিযোগ করেন ফার্ম কর্তৃপক্ষকে। তারই ধারাবাহিকতায় তিনি ফার্ম কর্তৃপক্ষের নিকট দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে বলেন, ‘আমার একাউন্টে টাকাটা পাঠিয়ে দেন সবাইকে মেনেজ করার দায়িত্ব আমার’। চাঁদা দাবীর বিষয়টি অযৌক্তিক ভেবে ফার্ম কর্তৃপক্ষ বিলম্ব করায় ঐ শিক্ষক অতিউৎসাহী হয়ে তার লোকজন নিয়ে চলাচলের রাস্তা কেটে দেন। একজন শিক্ষক হয়ে সরকারী রাস্তা কাটার বিষয়টি কতটুকু যৌক্তিক এই প্রশ্ন এখন সবার মুখে মুখে। সংশ্লিষ্ট এলাকার একটি সূত্র জানায়, এলাকায় পরিবেশ দূষণ হলে জেলার অভিভাবক হিসেবে জেলা প্রশাসক মহোদয় বিষয়টি দেখে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। কিন্তু পরিবেশ দূষণের সাথে রাস্তা কাটার সর্ম্পক্য কি ? এমন প্রশ্ন উঠে আসছে সচেতন মহলের কাছ থেকে। এ ব্যাপারে ধাক্কামারা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: আওরঙ্গজেব বলেন, এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য উভয় পক্ষকে পরিষদে আসতে বলা হয়েছে।