(দিনাজপুর২৪.কম) পঞ্চগড়ের সদর ও বোদা উপজেলায় বজ্রপাতে দুজন মারা গেছে। এছাড়া নারী-ও শিশুসহ পাঁচজন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে মুষলধারে বৃষ্টি পড়ার সময় বাড়ির পাশে আমন খেতে কাজ করছিলেন ইউনিয়নের ফুলতলা নতুনবন্দর এলাকার আবদুল কাদেরের ছেলে নাসিরুল ইসলাম (৪২)। এ সময় বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন নাসিরুল। স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পঞ্চগড় সদর উপজেলার সদর ইউপির চেয়ারম্যান জাহেদুল হক জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে ইউনিয়নের ভূষিভিটা এলাকায় গরু নিয়ে বাড়ি ফেরার সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান সোহেল রানা (১৯) নামের এক তরুণ।

এ ছাড়া সদর উপজেলার বীরপাড়া ও চানপাড়া এলাকায় বজ্রপাতে পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিরা হলেন ফয়জান বেগম (৬০), রাবেয়া খাতুন (৪০), মর্জিনা খাতুন (১৪), মোস্তাফিজুর রহমান (১২) ও আমিনা খাতুন (২৬)। তাঁদের পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদুর রহমান জানান, বজ্রপাতে আহত মোট ছয়জন হাসপাতালে আসেন। এর মধ্যে একজন মারা যান। বাকি পাঁচজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।