সুকুমার বাবু দাস (দিনাজপুর২৪.কম) প্রায় ২ মাস আগে থেকে চড়া দামে তামাক জাতীয় পণ্য বিক্রি শুরু হয়েছে পঞ্চগড়ে  । এতে বিপুল অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে অসাধু সিগারেট কোম্পানির বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ পঞ্চগড়ের হেলিপোট বাজারের  ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের। সূত্র জানায়, প্রতি প্যাকেট গোল্ডলিফ (২০ পিচ) ১৮৬ টাকা  কোম্পানি বিক্রি করলেও গায়ে মূল্য ১৫০ টাকা, বেনসন সিগারেট বিক্রি করছে ২৪২টাকা , (২০ পিচ) গায়ে মূল্য ২১০ টাকা,
ডার্বি ৩৭ টাকা, (১০ পিচ) গায়ে মূল্য ৩৫ টাকা। বুধবার  (৭ আগস্ট)  হেলিপোট বাজারের  ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আবুল কাসেম,আ:জলিল,দেলয়ার, জহিরুল ইসলাম নামে কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন ,ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ পঞ্চগড়ের বিক্রয় প্রতিনিধি (আহিরুল) আমাদের কাছ থেকে প্রতি প্যাকেট গোল্ডলিফ সিগারেট গায়ে মূল্যের তুলনায় ৩৬ টাক বেশি, বেনসন ৩২ টাকা, ডার্বি ২ টাকা বেশি করে  নিচ্ছে । সরকার ধূমপানে অনুৎসাহিত করার জন্য সিগারেটের ওপর কর বাড়িয়েছে, এটা ভালো উদ্যোগ। কিন্তু বাজেট কার্যকর করার আগে কোম্পানিগুলো
এই যে অতিরিক্ত টাকা নিচ্ছে এই টাকাতো সরকার নিচ্ছে না। তাহলে এর কি কোন প্রতিকার নাই। সিগারেটের অতিরিক্ত মূল্যের বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ পঞ্চগড়ের   বিক্রয় প্রতিনিধি আহিরুল ইসলাম জানান, ডিলার ও ম্যানেজমেন যেভাবে দাম নিতে বলছেন সেভাবে নিচ্ছি। আমরা গোল্ডলিফ  প্রতি প্যাকেট ১৮৬ টাকা নিচ্ছি, গায়ে মূল্য  ১৫০ টাকা আছে। এভাবেই নেয়া হচ্ছে ডার্বি ও বেনসনও । সেই দামের এক টাকা কম হলে জরিমানা দিতে হবে আমাকে। এদিকে কোম্পানি খুচরা ব্যবসায়ীদের কাজ থেকে  বেশি দামে সিগারেট বিক্রি করায় সে হিসাবেই ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সিগারেট বেশিদামে বিক্রি করে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদশ পঞ্চগড়ের  ইকবাল হোসেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আবুল কাসেমকে হয়রানি করার অভিযোগও উঠেছে।কোম্পানি সিগারেটের  দাম বেশি নেওয়ার ব্যাপারে  ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদশ পঞ্চগড়ের দায়িত্বে  থাকা ইকবাল হোসেনের কাছে  জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে বলেন আমি ডিলারের  লোক। কোম্পানি বা ডিলার পরিচালক এর মোবাইল নম্বর চাইলেও এড়িয়ে যান  বিষয়টি ।