bepu-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) সরকার নেপাল-ভুটান থেকে বিদ্যুৎ আনবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের অর্থায়নে নেপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে আগামী একমাসের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করা হবে। ভারতের ভূমি ব্যবহার করে আমরা নেপাল ও ভুটান থেকে বিদ্যুৎ আনব। নেপাল থেকে ভারতের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আনার বিষয়ে ভারত সরকারও সম্মতি দিয়েছে। ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকে আমরা ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করতে চাই। এ লক্ষ্যে প্রথমে নেপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে। একই পদ্ধতিতে ভুটানেও বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে গতকাল ডিআরইউ আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। বিদেশের মাটিতে দেশীয় অর্থায়নে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ওসব দেশে জলবিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। এতে খরচ অনেক কম পড়বে। তাতে দেশেরই লাভ হবে। তিনি বলেন, আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকে যেদিন আবেদন, সেদিনই বাসাবাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে। দেশে মাথাপিছু বিদ্যুৎ ব্যবহারের পরিমাণ বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে আন্তর্জাতিক চাপ আছে কিনা- এমন এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখানে কোন আন্তর্জাতিক চাপের কথা আসে না। আমার মনে হয় যারা পরিবেশবাদী ও পরিবেশবিদ তাদের মধ্যে দুই রকম মতামত থাকে। আমি মনে করি আমাদের পরিবেশ আইন মেনে কাজ করলে আমরা পরিবেশ রক্ষা করতে পারি। সেটা মেনেই আমরা করছি। আর সেটা মেনে করছি কিনা তা দেখবে পরিবেশ বিভাগ। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ও আমাদের দেশের পরিবেশবাদীরা আছেন, তাদের কথা তারা বলবেন, আমরা চেষ্টা করেছি তাদের বোঝানোর, তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। সেটা আমরা করে যাব। কিন্তু আমাদের (প্রকল্পের) কাজটাও আমরা চালিয়ে যাব। অনুষ্ঠানে ডিআরইউর যুগ্ম সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক শেখ মাহমুদ এ রিয়াত, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিজান চৌধুরী, আপ্যায়ন সম্পাদক কামালউদ্দিন সুমন, কার্যনির্বাহী সদস্য হাবীবুর রহমান ও আনিসুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। -ডেসস্ক