(দিনাজপুর২৪.কম) রাশিয়া বিশ্বকাপে শুক্রবার সেন্ট পিটার্সবার্গে কোস্টারিকার বিপক্ষে জয়টা ছিনিয়ে এনেছে ব্রাজিল। সেলেকাওদের ‘ই’ গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ৯০ মিনিট আটকে রেখেছিল কোস্টারিকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর নিজেদের রক্ষণদুর্গ অটুট রাখতে পারেনি তারা। রিয়ালে মাদ্রিদে খেলা কোস্টারিকার গোলরক্ষক পারেননি তার গোলবারের মুখটা আরও কিছুক্ষণ বন্ধ রাখতে। ম্যাচের ৯১ মিনিটে ব্রাজিলের হয়ে প্রথম গোল করেন কৌতিনহো। দারুণ ফর্মে থেকে লিভারপুল থেকে বার্সেলোনায় যাওয়া তারকা দুই ম্যাচেই দলের দরকারে দুই গোল করেছেন। এরপর ম্যাচের ৯৭ মিনিটে গোল করেছেন নেইমার। তার ওই গোলে দুই রেকর্ড গড়েছেন তিনি। একটি ব্যক্তিগত, অন্যটি ফুটবল বিশ্বকাপের রেকর্ড।

নেইমার ইনজুরি থেকে ফিরে চার ম্যাচ খেলেছেন। গোল করেছেন তার তিনটিতে। প্রীতি ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গোল করে নেইমার রোমারিও থেকে এক গোল পেছনে ছিলেন। অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে গোল করে উঠে যান রোমারিওর সমানে। আর রাশিয়া বিশ্বকাপে এসে নিজের প্রথম গোলে ব্রাজিলের হয়ে রোমারিওর ৫৫ গোলের রেকর্ড ভেঙে ৫৬ গোল করে ফেললেন নেইমার। ব্রাজিল তারকাদের মধ্যে তার সামনে এখন দুই সাবেক রোনালদো (৬২) এবং পেলে (৭৭)।

এছাড়া নেইমার কোস্টারিকার বিপক্ষে ৯৭ মিনিটে যে গোলটি করেছেন তাতে হয়েছে বিশ্বকাপের এক রেকর্ড। সেকেন্ডের হিসেব ধরলে নেইমারের গোলটি ছিল ৯৬ মিনিট ৪৯ সেকেন্ডে হয়েছে। বিশ্বকাপে ১৯৬৬ সালের পর ৯০ মিনিটের ম্যাচে এর থেকে বেশি সময়ে গোল হয়নি আর। -ডেস্ক