মো. জাকির হোসেন (দিনাজপুর২৪.কম) পারিজা ধানের কাটাই মাড়াই শুরু হয়েছে নীলফামারী সহ উত্তরাঞ্চলে। স্বল্প মেয়াদী এই আগাম ধানটি বোরো আবাদের পর কৃষকরা আবাদ করেছিল। এখন পাকিজা ধানটি জমি থেকে কর্তনের পর সেই জমিতে কৃষকরা চলতি আমন ধানের চাষ করবে।  সংশ্লিষ্ট সুত্র মতে চলতি বছর নীলফামারী জেলায় স্বল্পমেয়াদি আমন-সরিষা/আলু-মুগডাল-আউশ শস্যবিন্যাসের আওতায় মোট ৩০০ জন কৃষকের মাধ্যমে ৩০০ বিঘা জমিতে পারিজা ধান আবাদ করা হয়েছে। পারিজা ধান একটি স্বল্পমেয়াদি জাতের ধান যা মাত্র ৮৫ থেকে ৯০ দিনের মধ্যে কর্তন করা যায় এবং গড় ফলন প্রতি হেক্টরে ৩.৫ টন (বিঘা প্রতি গড়ে ১২ মণ) হয়ে থাকে। চলতি বছর রংপুর বিভাগের আট জেলায় মোট দেড় শতাধিক কৃষকের মাধ্যমে দেড়শত বিঘা জমিতে এই ধান আবাদ করা হয়। এর মধ্যে নীলফামারীতে তিনশত বিঘা, গাইবান্ধায় তিনশত বিঘা, দিনাজপুরে চারশত বিঘা, রংপুরে একশত বিঘা, লালমনিরহাটে একশত বিঘা, ঠাকুরগাঁয়ে দেড়শত বিঘা এবং পঞ্চগড়ে দেড়শত বিঘা।  রবিবার সকালে নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের মেলাবর গ্রামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও আরডিআরএস বাংলাদেশের যৌথ আয়োজনে কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন (কেজিএফ) এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (ডিএই) এর সহযোগিতায় পারিজা ধান প্রদর্শণীর উপর কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। বড়ভিটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মোঃ ফজলার রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক গোলাম মো: ইদ্রিস। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষিতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: মইনুল হক; আন্তর্জাতিক ধান গবেষনা ইনিষ্টিটিউট (ইরি)  কনসালটেন্ট ড. এমজি নিয়োগী, কেজিএফ এর সিনিয়র মনিটরিং অফিসার মো: আব্দুল বাতেন আরডিআরএস বাংলাদেশ নীলফামারী ইউনিটের কর্মসূচি সমন্বয়কারী জনাব খ.ম. রাশেদুল আরেফীন ও আরডিআরএস বাংলাদেশের কৃষি ও পরিবেশ সমন্বয়কারী মোঃ মামুনুর রশিদ।
মেলাবর বাবুপাড়া গ্রামের চাষী ধীরেন চন্দ্র জানান, তিনি তিনি বোরো ধান কাটাই মাড়াইয়ের পর গত ২৫ মে  ৩০ শতক জমিতে পারিজা ধান রোপন করেন। যা তিনি ৮৭ দিনের মাথায় পারিজা ধান কর্তন করলেন। এখন এই জমিতে তিনি আমন রোপন করবেন। চলতি বছর বড়ভিটা ইউনিয়নে ১৬৯ জন চাষী পারিজা ধান চাষ করেছে।  পারিজা ধানের সুফলের ফলে এই এলাকার কৃষির একটি নতুন অধ্যায়ের শুরু হয়েছে।