(দিনাজপুর২৪.কম) প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, চলতি বছর বিদেশগমনকারী ৫৫ হাজার ১৪৯জন নারী কর্মী বিদেশ পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে বিভিন্ন সমস্যার কারণে ৩৬৯জন নারী কর্মী দেশে ফিরে এসেছেন। কর্মক্ষেত্রে নারী কর্মীদের হয়রানি বন্ধ ও নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে আইনজীবী নিয়োগ করে আইনগত সহায়তা প্রদান, প্রতিকার পাওয়ার জন্য প্রবাসবন্ধু কলসেন্টার চালু করাসহ ওমান ও সৌদি আরবের জেদ্দা ও রিয়াদে সেইফ হোম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

সংসদের সোমবারের বৈঠকে টেবিলে উত্থাপিত জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম উদ্দিনের (সিলেট-৫) প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের ২১তম মুলতবি অধিবেশন শুরু হয়। অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান।

প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি আরো বলেন, সরকার বিনা খরচে নারী কর্মীদের বিদেশ প্রেরণ করছে। বিদেশ গিয়ে প্রতারিত হলে বিএমইটি বা মন্ত্রণালয়ে সরাসরি অভিযোগ দাখিল করে প্রতিকার পাওয়ার সুযোগ রাখা হয়েছে। অভিবাসনে স্বচ্ছতা আনার জন্য টাস্কফোর্স গঠন করাহয়েছে। এছাড়া বিদেশ গিয়ে যাতে ভাষাগত কোন সমস্যায় পড়তে না হয়, সেজন্য জাপানীজ, আরবী, ইংরেজী ও কোরিয়ান ভাষা প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করা হয়েছে। তাদের জন্য একমাসের প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এসময় তিনি আরো জানান দক্ষ কর্মীদের কর্মক্ষেত্রে হয়রানীর ঝুঁকি কম, বেতন-ভাতও বেশি।

৩০ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৮জন কর্মী বিদেশে

মহিলা এমপি বেগম সানজিদা খানমের তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে  প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি  বলেন, বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে (১ জানুয়ারি ২০১৪ থেকে ৩১ মে ২০১৮ পর্যন্ত) ৩০ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৮জন কর্মী বিদেশে কর্মসংস্থান লাভ করেছে। এরমধ্যে ২০১৭ সালেই বিদেশ গেছেন ১০ লাখ ৮ হাজার ৫২৫ জন। সংসদে দেওয়া মন্ত্রীর তথ্য অনুযায়ী ২০১৪ সালে বিদেশ গেছেন ৪ লাখ ২৫ হাজার ৬৮৪ জন। ২০১৫ সালে বিদেশ গেছেন ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৮৮১জন। ২০১৬ সালে বিদেশ গেছেন ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৩১ জন। ২০১৮ সালের মে মাস পর্যন্ত বিদেশ গেছেন ৩ লাখ ৪৭ হাজার ২৭ জন।

গেল বছর দেশে এসেছে ৩ হাজার ২৬৩ জনের মৃতদেহ

মমতাজ বেগমের (মানিকগঞ্জ-২) রিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি  বলেন, বিদেশ থেকে ২০১৭ সালে ৩ হাজার ২৬৩ জনের মৃতদেহ দেশে এসেছে। এজন্য তিনিটি আন্তর্জাতিব বিমান বন্দর থেকে পরিবহন ও দাফন খরচ বাবদ ৩৫ হাজার টাকা হারে ১১ কোটি ৪১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া মৃতকর্মীদেও পরিবার প্রতি ৩ লাখ টাকা হারে ওয়েজ আর্নাার কল্যাণ বোর্ডের মাধ্যমে  ৩ হাজার ৫০৫ জন কর্মীর পরিবারকে একশ কোটি ষোল লাখ টাকা ৩০ হাজার ১৯২ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়েছে। একইসঙ্গে নিয়োগকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে মৃত্যুজণিত ক্ষতিপূরণ, বকেয়া বেতন ও ইন্সুরেন্স বাবদ ১ হাজার ১৪২জন কর্মীর অনুক’লে ৬৯ কোটি ৩৫ লাখ টাকা আদায় কওে ওয়ারিশদেও মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।

দেশে ৭০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র 

মহিলা এমপি বেগম উম্মে রাজিয়া কাজলের তারকা চিহ্নিত আরেক প্রশ্নের জবাবে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি  বলেন, জনশক্তি কর্মস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) আওতায় দেশের বিভিন্ন জেলাতে ৬৪টি কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং৬টি ইনস্টিটিউট অব মেরিন টেকনোলজিসহ মোট ৭০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে। -ডেস্ক