(দিনাজপুর২৪.কম) করোনা মোকাবিলায় পথে নেমে যাবতীয় পরিকাঠামো খতিয়ে দেখছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কখনও বাজার, কখনও হাসপাতাল, কখনও বা জেলাশাসক-পুলিশ সুপারদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স, মুখ্যমন্ত্রীর দৌড় যেন থামছেই না। এই পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলার জন্য গঠিত কেন্দ্রীয় সরকারের তহবিল ও রাজ্যের তহবিলে ৫ লাখ টাকা করে মোট ১০ লক্ষ টাকা দিলেন তিনি।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) টুইটারে বিষয়টির কথা উল্লেখ করেছেন মমতা।

তিনি লিখেছেন, ‘বিধায়ক বা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কোনও বেতন নিই না। সাতবারের জন্য সাংসদও ছিলাম। তার জন্য আমার প্রাপ্য পেনশনও আমি নিই না। আমার আয় খুবই সীমিত। প্রাথমিকভাবে আমার আয় হয় আমার গান ও বই বাবদ যে রয়্যালটি পাই, সেটাই।’ সেইসঙ্গেই তাঁর সংযোজন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীর ন্যাশনাল রিলিফ ফান্ড ও ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট এমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ডে ৫ লক্ষ টাকা করে দিলাম। করোনার জন্য আমাদের লড়াই করে যেতেই হবে।’

মমতার টুইট

করোনা মোকাবিলায় PM CARES Fund গঠন করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ওই ট্রাস্টের চেয়ারম্যান খোদ প্রধানমন্ত্রী। প্রতিরক্ষামন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী হলেন সদস্য। গোটা দেশের জন্য ত্রাণ তহবিল খুলেছেন প্রধানমন্ত্রী। আর সেই ত্রাণ তহবিলে সিনেমা ব্যক্তিত্ব থেকে ক্রিকেটার থেকে সাধারণ মানুষ, সাহায্য করতে এগিয়ে আসছেন সকলেই।

দু’হাত খুলে দান করছেন অনেকেই। সেই তালিকায় ঢুকে পড়েছেন বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমার। করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যে ত্রাণ তহবিল খুলেছেন সেই ‘পিএম কেয়ারস’ ফান্ডে ২৫ কোটি টাকা অর্থসাহায্য করেছেন অভিনেতা। ভারতীয় সেলেবদের মধ্যে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি অনুদান অক্ষয়েরই। এর আগে হৃত্বিক রোশন ২০ লক্ষ টাকা দিয়েছেন। কপিল শর্মাও দিয়েছেন ৫০ লক্ষ। সাহায্যে এগিয়েছে এসেছেন সলমান খানও। সচিন তেন্ডুলকার দিয়েছেন ৫০ লাখ, প্রভাস দিয়েছেন চার কোটি। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় দিয়েছেন গরিবদের জন্য ৫০ লক্ষের চাল। -ডেস্ক