(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশের জন্য ‘সবুজ ফাঁদ’ পেতে বসে আছে নিউজিল্যান্ড। পেস তোপে টাইগারদের পোড়াতে চান কিউইরা। এর সদ্ব্যবহার করতে চান সফরকারীরাও। পেস সহায়ক কন্ডিশনে খেলা বলে পরিকল্পনায় রয়েছেন চার পেসার। যেটি সাদা পোশাকে মাহমুদউল্লাহদের ক্ষেত্রে খুব কম দেখা যায়।বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় হ্যামিল্টনে গড়াবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। এটি জিতে এগিয়ে চায় নিউজিল্যান্ড। ব্যতিক্রম নয় বাংলাদেশ। আগের দিন ইবাদত হোসেন জানালেন, টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনায় আছেন চার পেসার।তিনি বলেন, টেস্ট জিততে হলে ২০ উইকেট নেয়ার সক্ষমতা থাকতে হবে। স্কোয়াডে থাকা চার পেসারকে সেই দায়িত্ব দিয়েছেন টাইগার পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ইবাদতের গায়ে উঠতে পারে জাতীয় দলের জার্সি। সবুজ ক্যাপটা এদিনই পেয়ে যেতে পারেন তিনি। ক্রিকেটের অভিজাত সংষ্করণে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা পেসার বলেন, এখানে আসার পর পরিকল্পনা মাফিক সবকিছু হচ্ছে। পেস বোলিং কোচ ও পেসাররা মিলে একটি মিটিং করেছি। এটা আমাদের মিটিং, টিম মিটিং নয়। আমরা কোচের কাছে জানতে চেয়েছি কিভাবে সবকিছু কাজে লাগানো যায়। কোর্টনি বলেছেন, আমরা চারজন মিলে যদি ২০ উইকেট নিতে পারি তাহলে টেস্ট জেতা সম্ভব।নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ টেস্ট স্কোয়াডে আছেন চার পেসার। অভিজ্ঞতায় সবচেয়ে এগিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান। গেল অভিষেক হয়েছে আবু জায়েদ রাহী ও খালেদ আহমেদের। অভিষেকের অপেক্ষায় ইবাদত। এই চার পেসারকে নিয়ে আশাবাদী ওয়ালশ। কোচ আশাবাদী হওয়ায় স্বাগতিদের মাটিতে টেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখছেন শিষ্যরাও।ইবাদত বলেন, আমাদের ওপর উনার অগাধ বিশ্বাস। আমাদের নিয়ে অনেক আশাবাদী উনি। চারজন ২০ উইকেট নিতে পারলে টেস্ট জেতার আশা করতে পারি।ডেস্ক