SAMSUNG CAMERA PICTURES

(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের পুলিশ সুপার মোঃ রুহুল আমিন বলেছেন আমাদের দৃষ্টি ভঙ্গি পরিবর্তনের মাধ্যমে এবং সু-সর্ম্পক গড়ে তোলার মাধ্যমে সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও সেবা গ্রহণকারীদের পথ সুগম হবে। নির্যাতনের শিকার নারীদের জন্য সেবা প্রাপ্তির পথ সুগম করতে সচেতনতার বিকল্প নেই। স্বাস্থ্য সেবা বা আইনি সেবা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে হয়রানির অনেক অভিযোগ রয়েছে। এ ধরনের অভিযোগের প্রতিকার করতে সেবা গ্রহণকারীদের স্বোচ্চার হতে হবে। সরকারি সেবা নিশ্চিত করতে সরকার প্রতিটি ক্ষেত্র সুগম রেখেছে শুধু সেবা গ্রহণকারীদের সঠিক স্থানে সেবা গ্রহণের বিষয় জানতে হবে।
গতকাল  বুধবার বালুবাড়ীস্থ এমবিএসকে প্রশিক্ষণ কক্ষে জেএসকেএস এবং বালুবাড়ী বহুমুখী শিক্ষা কেন্দ্র (এমবিএসকে)’র আয়োজনে ঊষা-ইফনিট ফর সোশ্যাল এন্ড হিউম্যান এ্যাকশন ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন এর সহযোগিতায় নির্যাতনের শিকার নারীদের জন্য সেবা প্রাপ্তির পথ সুগম করার লক্ষ্যে থানা, আদালত ও হাসপাতালের ভূমিকা শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে  এ কথা গুলো বলেন। এমবিএসকে’র নির্বাহী প্রধান রাজিয়া হোসেন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জজ কোর্টের এপিপি এ্যাড. আতাউর রহমান, দিনাজপুর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ রফিকুল ইসলাম ও জেএসকেএস সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোস্তফা কামাল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঊষা সংস্থার প্রজেক্ট ফ্যাসিলিটেটর মোঃ আবদুল খালেক খান। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন এমবিএসকে সিনিয়র একাউন্টেন্ড মোঃ আমিনুজ্জামান। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন প্রজেক্ট সহকারী মোর্শেদা পারভিন মলি। সভায় নির্যাতনের শিকার নারীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সাইনুর বেগম, তাজুন নাহার, সেবিকা সুলতানা ও মহসিনা খাতুন।