(দিনাজপুর২৪.কম) নারী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরল রেকর্ডের মালিক ইংল্যান্ড অধিনায়ক হিদার নাইট। প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে তিন সংস্করণে সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব দেখান ২৯ বছর বয়সী এই ব্যাটার। অস্ট্রেলিয়া থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলে দেশে ফিরেছেন দুই সপ্তাহও হয়নি। নেমে পড়েছেন করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়তে। ইংল্যান্ডের জাতীয় স্বাস্থ্য স্কিমের (এনএইচএস) স্বেচ্ছাসেবিকা হিসেবে যোগ দিয়েছেন প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডের একই ইনিংসে ফিফটি ও পাঁচ উইকেট নেয়া এই তারকা।

গত মঙ্গলবার এনএইচএস আবেদন রেখেছিল, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়তে আড়াই লক্ষ স্বেচ্ছাসেবক দরকার। তাদের কাজ রোগীদের বাড়িতে ওষুধ পৌঁছে দেওয়া, গাড়ি চালিয়ে আক্রান্তদের চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া বা বাড়ি নিয়ে আসা। আইসোলেশনে থাকা মানুষদের ফোন করে খোঁজখবর নেওয়া। ইতিমধ্যেই এনএইচএস-এর সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছেন ৭০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক।

যাদের মধ্যে রয়েছেন হিদার নাইটও। তিনি বলেন, ‘অবসর সময় কাটছিল। ভাবলাম এটা সমাজের পাশে দাঁড়ানোর সঠিক সময়। আমার দাদা চিকিৎসক। আমার বেশ কয়েক জন বন্ধুও এনএইচএস-এ কাজ করে। সে জন্য জানি, কতটা কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে তারা।’

স্বেচ্ছাসেবিকা হিসেবে নিজের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে ডানহাতি এই ব্যাটার বলেন, ‘আমি প্রতিদিন গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে আক্রান্ত মানুষের বাড়িতে ওষুধ পৌঁছে দিচ্ছি। আর যারা স্বেচ্ছাবন্দি হয়ে রয়েছেন, তাদের সঙ্গে জনসংযোগের কাজটিও করতে হচ্ছে। কেউ বাড়িতে একা থাকলে তাকে ফোনে প্রয়োজনীয় পরার্মশও দিচ্ছি।’ ডেস্ক