(দিনাজপুর২৪.কম) নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা ইসদাইর এলাকায় রহিমা বেগম (৬০) নামে এক নারী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। রোববার রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।
এর আগে শুক্রবার (১০ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে থেকে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তার লাশ কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।
মৃত রহিমা বেগম পূর্ব ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকার বাসিন্দা ব্যাংক কর্মী সুলতানের স্ত্রী। তাদের দুই ছেলে রয়েছে। যার মধ্যে একজন বর্তমানে মালয়েশিয়া আছেন।
নিহতের ছেলে রিপন বলেন, মা অসুস্থ্য ছিলেন। করোনার কোনো উপসর্গ ছিল না। তাই প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই।

সেখানে তার নমুনা পরীক্ষা করা হলে পজেটিভ আসে এবং কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে ভর্তি হতে বলা হয়। রোববার রাত সাড়ে ৯টায় তিনি মারা যানদ
তিনি আরো বলেন, আমার মায়ের লাশ তারা নারায়ণগঞ্জ আনতে দেবে না। বলেছেন পরিবারের একজন দাফনের সময় উপস্থিত থাকতে পারবে। তাই আমি ঢাকা যাবো।
এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন বলেন, মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। কাউকে বাড়ি থেকে বের না হওয়ার নির্দশনা দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য নারায়ণগঞ্জের বন্দরের রসুলবাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩০ মার্চ প্রথম পুতুল (৫০) নামে এক নারী মারা যায়। -ডেস্ক