(দিনাজপুর২৪.কম) নাগরিকত্ব আইন নিয়ে গোটা ভারত সোচ্চার হলেও মুখে কুলুপ এঁটেছেন শাহরুখ-সলমন-রণবীররা। কিন্তু ঠিক সেই সময়েই এই ঘটনার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে উঠলেন আয়ুষ্মান খুরানা থেকে শুরু করে রাজকুমার রাওয়েরা।

জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকে শিক্ষার্থীদের উপরে পুলিশি নিগ্রহের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন আয়ুষ্মান।

নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে তিনি লেখেন, ‘‘প্রত্যেকরই প্রতিবাদ জানানোর নৈতিক অধিকার রয়েছে। তা সত্ত্বেও যে অবস্থার মধ্য দিয়ে ছাত্রদের যেতে হচ্ছে তা খুবই দুঃখজনক। আমরা ভুলে যাচ্ছি, এই ভূমি মহাত্মা গাঁধীর, অহিংসা এখানকার মূলমন্ত্র। গণতন্ত্রের ওপর আস্থা রাখুন।’’

অভিনেতা রাজকুমার রাও-ও চুপ করে থাকেননি। তার বক্তব্য,পুলিশ ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে যে ব্যবহার করেছে তা কোনওমতেই মেনে নেওয়া যায় না। পাশাপাশি, জনগণের সম্পত্তি নষ্ট করে প্রতিবাদকেও তিনি সমর্থন করেন না বলে জানান এই অভিনেতা।

টুইটার থেকে বিদায় নিয়েছিলেন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ। কিছু দিন আগে ফিরে এসেছেন তিনি। ফিরেই জামিয়া-কাণ্ড নিয়ে নিজের মতামত স্পষ্ট ভাষায় লিখেছেন পরিচালক। তিনি লিখেছেন, “মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছে। আর চুপ করে থাকা যায়না। এই সরকার নিঃসন্দেহে ফ্যাসিস্ট। যাদের এই সময় আওয়াজ তোলা উচিত, তারা এক্কেবারে চুপ। খারাপ লাগছে সেটাই।”

রিতেশ দেশমুখ, স্বরা ভাস্কর এবং তাপসী পান্নুও এই ঘটনায় গর্জে উঠেছেন। তাপসীর টুইটার অ্যাকাউন্টে এলেই দেখা যাবে জামিয়ায় পুলিশি নির্যাতনের ভিডিয়োতে ভর্তি।

যদিও বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতাদের মুখে এখনও পর্যন্ত কুলুপ আঁটা। শাহরুখ, সলমন বা আমির থেকে আলিয়া, রণবীর, দীপিকা…দেশ জুড়ে গড়ে ওঠা প্রতিবাদ, বা জামিয়া কাণ্ড নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও কথা বলেননি তারা। চরম অস্থিরতাতেও তারা এখনও চুপ কেন? প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

নরেন্দ্র মোদীকে ঘিরে থাকা একঝাঁক বলিস্টারের এক পুরনো ছবি শেয়ার করে ‘লিপস্টিক আন্ডার মাই বুরখা’-খ্যাত সায়নী গুপ্ত সোমবার টুইটারে লেখেন, “জামিয়ার ছাত্রছাত্রীদের তরফ থেকে শেষ বারের জন্য আপনাদের কাছে আবেদন করছি, এখনও চুপ করে থাকবেন? করবেন না প্রতিবাদ?”

নিজে জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র হয়েও কী করে এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে একটি বাক্যও খরচ করেননি শাহরুখ, এই বিষয়টাই বিস্মিত করেছে তার অনুরাগীদের একাংশকে।

এরই পাশাপাশি ‘সাবধান ইন্ডিয়া’ খ্যাত সুশান্ত সিংহকে মঙ্গলবারই শো-র সঞ্চালক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে অভিনেতা মনে করছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় নাগরিকত্ব আইন নিয়ে প্রতিবাদ জানানো।

সুশান্ত টুইটারে লেখেন, “খুবই ছোট মূল্য দিতে হল। তা না হলে সুখদেব, ভগত সিংহের মতো বিপ্লবীদের জবাব দেব কী করে? ২০০২-এ মুক্তিপ্রাপ্ত ‘রং দে বসন্তী’ ছবিতে সুখদেবের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন সুশান্ত। -ডেস্ক