(দিনাজপুর২৪.কম) নরসিংদীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে আলালপুরে তিনজন ও শিবপুরে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের নরসিংদী স্টেশনের উপসহকারী মো. শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, শিবপুর উপজেলায় বাস খাদে পড়ে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরো ১২জন। বেপরোয়া গতি ও ঘুমচোখে গাড়ি চালানোর কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ভোর ৫টায় সুনামগঞ্জ থেকে ঢাকাগামী মামুন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হন। এতে বাসটি দুমড়েমুচড়ে যায়। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের উপজেলার কারারচর এলাকার সুলতানা ফিলিং স্টেশনের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এদিকে, ময়মনসিংহ সদর উপজেলায় মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরো তিনজন। গুরুতর আহত অবস্থায় আবদুল হামিদের ছেলে নুরুদ্দিন আহমদ, মেয়ে ফাতেমা বেগম ও মাইক্রোবাসের চালক কউসার আহমদকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার আলালপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানান কোতোয়ালি মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) উজ্জ্বল সাহা। নিহতরা হলেন আবদুল হামিদ মেম্বার, তাঁর স্ত্রী সাহেরা বেগম ও তাঁদের ছেলে সফিকুল ইসলাম। তাঁদের বাড়ি গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় বলে জানা গেছে।

এসআই উজ্জ্বল সাহা আরো বলেন, হতাহতরা মাইক্রোবাসে করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসছিলেন। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাসটি রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে ছয়জন আহত হন। হাসপাতালে নিয়ে আসার পর চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। -ডেস্ক