নভেম্বরে পাকিস্তান-ভারত যুদ্ধ! – ছবি : সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) চলতি বছরের নভেম্বর বা ডিসেম্বরের মধ্যেই পাক-ভারত যুদ্ধ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমদ। গতকাল বুধবার রাওয়ালপিন্ডিতে একটি অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি।

পাক-ভারত যুদ্ধের আশঙ্কা করে শেখ রশিদ বলেন, ভারত পাকিস্তানের মধ্যে প্রায় ১০টির মতো যুদ্ধ বা যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল। আগামী নভেম্বর বা ডিসেম্বরের সময়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি দেখছি এর মধ্যে ভারতের সাথে আমাদের যুদ্ধ হতে পারে। এ জন্য সব মতভেদ ভুলে এখন এক সাথে চলতে হবে। তিনি বলেন, অধিকৃত কাশ্মিরে চূড়ান্ত স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় এসেছে এবং ভারতের সাথে যুদ্ধ হবে এবারের মতো শেষ যুদ্ধ।

জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ এ ব্যাপারে কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। তারা সত্যিই ইস্যুটির সমাধান চাইলে সেখানে গণভোটের ব্যবস্থা করতেন।
পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী বলেন, ভারতের ২৫ কোটি মুসলমান এখন পাকিস্তানের দিকে চেয়ে আছে। কাশ্মিরি জনগণের সাথে এখনই আমাদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে হবে। অন্যথায় ইতিহাস আমাদের ক্ষমা করবে না। তিনি বলেন, ১০ মুহাররমের পরে আমি আবার কাশ্মির সফর করবো। তিনি বলেন, নিষ্ঠুর ও ফ্যাসিবাদী নরেন্দ্র মোদির কারণে কাশ্মির এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এবং তার সামনে একমাত্র প্রতিবন্ধক পাকিস্তান। তিনি প্রশ্ন করেন, এ ইস্যুতে বাকি মুসলিম বিশ্ব নীরব কেন? জিন্নাহ অনেক আগেই ভারতের মুসলিমবিরোধী মানসিকতা অনুধাবন করেছিলেন। যারা এখনো ভারতের সাথে সংলাপ সম্ভব মনে করেন, তারা নির্বোধ। ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসঙ্ঘে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ভাষণ হবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ভাগ্যবান যে, আমাদের পাশে চীনের মতো বন্ধু পেয়েছি।

সূত্র : পাকিস্তান টুডে

ভারতের জন্য আকাশ ও বাণিজ্যপথ বন্ধ করবে পাকিস্তান
রয়টার্স

ভারতের জন্য আকাশপথ পুরোপুরি বন্ধ করার পরিকল্পনা করছে পাকিস্তান। সেইসাথে আফগানিস্তানের সাথে ভারতের বাণিজ্যপথ বন্ধ করে দেয়া নিয়েও আলোচনা চলছে। মঙ্গলবার টুইটারে এ কথাই জানিয়েছেন পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন চৌধুরী।

তিনি লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের জন্য আকাশসীমা পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন। ভেবে দেখছেন পাকিস্তানের ভেতর দিয়ে আফগানিস্তানের সাথে ভারতের স্থলবাণিজ্য বন্ধ করার বিষয়টিও। এ নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনাও হয়েছে। চূডান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আইনি দিকগুলো নিয়ে কথাবার্তা চলছে।’

গত ৫ আগস্ট ভারতের প্রধানমন্ত্রীর জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার প্রসঙ্গ টেনে ফাওয়াদ লেখেন, ‘শুরুটা মোদি করেছেন শেষ করব আমরা।’ নিপীড়িত কাশ্মিরি জনগণের সহায়তায় পাকিস্তান যতদূর সম্ভব হাত বাড়াতে প্রস্তুত বলে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সোমবার জাতির উদ্দেশে ভাষণে অঙ্গীকার করার পরদিনই মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী এ টুইট করলেন।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে কাশ্মিরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলার জেরে পাকিস্তানের বালাকোটে ভারতের বিমান হামলার পর ইসলামাবাদ তাদের আকাশপথ বন্ধ করে দিয়েছিল। প্রায় চার মাস বন্ধ থাকার পর জুলাইয়ের মাঝামাঝিতে তারা আবার ভারতের জন্য আকাশপথ উন্মুক্ত করে। এবার ভারত সরকার কাশ্মির থেকে ৩৭০ ধারা তোলার পরই ফের পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ক উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে উঠেছে। -ডেস্ক