(দিনাজপুর২৪.কম) করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও শ্রমিক সংকটের কারণে বোরো ধান ঘরে তুলতে পারছে না কৃষকেরা। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে স্বেচ্ছাসেবক ‍যুব ও সামাজিক সংগঠনের পাশাপাশি ধান কাটতে দেখা গেছে সরকারি কর্মকতাসহ সরকার দলীয় নেতা-কর্মীদেরও।

এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান মনির স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ধান কাটেন। পরে সেই ধান কাটার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে যা নিয়ে আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এক মিনিটের ওই ভিডিওটিতে দেখা যায় তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে একজন কৃষকের জমির বোরো ধান কেটে দিচ্ছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন ব্যক্তি একটি জমির ধান কাটছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনির, গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তালুকদার সুরুজসহ বেশ কয়েকজন স্থানীয় নেতা-কর্মী।

ব্যাপারে কৃষক লতিফ মিয়া বলেন, আমি ও আমার ছেলে ধান কাটছিলাম। ঠিক তখন এমপি পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় আমার ধান কেটে দেয়।

এ কৃষক সুজন মিয়া জানান, বৈরান নদীর নিচু জমিতে তিনি ২০ শতাংশ ব্রি-ধান ২৮ জাতের বোরো ধান লাগিয়েছেন। আগাম জাতের হওয়ায় শীষের ৮০ ভাগ ধান পেকে গেছে। প্রতি দিনই বৃষ্টি হচ্ছে। নদীর তলদেশে পানি জমছে। ভারী বর্ষণ হলে জমির ধান ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড বৈরাণ নদীর খনন কাজ করছে। তার ধানী জমি থেকে পাঁচশগজ দূরে এ খনন এসে ঠেকেছে। তাই ক্ষেতের পাকা ধান কাটা খুব জরুরি। কিন্তু করোনার কারণে শ্রমিক না মেলায় নিজেই ক্ষেতের ধান কাটছিলেন। -ডেস্ক