(দিনাজপুর২৪.কম) শুক্রবার বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) পৌঁছেন সাকিব আল হাসান। যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেছেন ৫ মাস পর। করোনায় গৃহবন্দি জীবনে চুল হয়েছিল বড় বড়। তাই গতকাল চুল ছেঁটে ছোট করেছেন। এরপর প্রথম দিন জিম করেছেন। আজ সকাল ৯টায় বিকেএসপির অ্যাথলেটিক কোচ আবদুল্লাহ হেল কাফীর সঙ্গে দেখা করবেন সাকিব। কাফী বাংলাদেশের সাবেক দ্রুততম মানব। তার অধীনেই চলবে সাকিবের ট্রেনিং।

এরপর তার দুই শিক্ষক নাজমুল আবেদিন ফাহিম ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের সঙ্গে সেশন করবেন সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত। আপাতত সাকিব ব্যাটিং-বোলিং করবেন বিকেএসপি-১ নম্বর মাঠ সংলগ্ন ইনডোরে।  তবে ১২ই সেপ্টেম্বর থেকে পুরোদমে ব্যাটিং ও বোলিং শুরু করবেন বিকেএসপি’র-৩ নম্বর মাঠের সেন্টার উইকেটে। তার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে সেই উইকেট। বিকেএসপি’র একটি সূত্র জানিয়েছেন ৮ই অক্টোবর পর্যন্ত তিনি সেন্টার উইকেটে অনুশীলন করবেন। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এখন আইসিসির নিষিদ্ধ ক্রিকেটার। জুয়াড়ির প্রস্তুাব পেয়ে তা না জানাননি আইসিসি ও বিসিবিকে। যার ফলে ১০ মাস ধরে মাঠের বাইরে। তবে আর মাত্র ৫৩ দিন পর তিনি ফিরছেন ক্রিকেটে। মুক্তি মিলবে তার ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে। তাই বিকেএসিতে এই সময়টায় চলবে তার নতুন করে ফিরে আসার লড়াই।

এ লড়াইয়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ফিটনেস। তাই বিকেএসপির অ্যাথলেটিক্স কোচকে পাচ্ছেন নিজের ট্রেইনার হিসেবে। এই বিকেএসপিতেই তিনি শিখেছেন ক্রিকেটের অ, আ, ক, খ। তার সেই শিক্ষা জীবনে বড় ভূমিকা ছিল তখনকার বিকেএসপির দুই শিক্ষক নাজমুল আবেদিন ফাহিম ও মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের। এর মধ্যে নাজমুল আবেদিন দীর্ঘদিন ছিলেন বিসিবির গেম ডেভালপমেন্টের ম্যানেজারের দায়িত্বে। তবে হঠাৎ  করেই  চাকরি ছেড়ে চলে যান তার পুরানো প্রতিষ্ঠান বিকেএসপিতে। সেখানে বর্তমানে তিনি উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন। আর সালাউদ্দিন জাতীয় দলের সাবেক সহকারী কোচের দায়িত্বেই ছিলেন। বর্তমানে তিনি দেশের সেরা কোচদের একজন হিসেবেই পরিচিত। এছাড়াও সাকিবের ট্রেনিংয়ের দায়িত্ব নেয়া কাফী ২০০৯ সাল থেকে বিকেএসপিতে কোচ হিসেবে কর্মরত আছেন। কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে জাতীয় দলেও। এই বছরই পেয়েছেন পেয়েছেন ইয়ুথ একাডেমি কোচের সনদ। আজ সাকিব ট্রেনিং শুরু করবেন বিকেএসপির কাফীর কাছে। মূলত জিম, ট্রেনিং, আর ইনডোরে ব্যাটিং-বোলিং  দিয়ে চলবে তার কর্যক্রম।

অন্যদিকে ১২ই সেপ্টেম্বর সেন্টার উইকেটে ব্যাটিং-বোলিং অনুশীলন হবে দুপুর ২টার পর।  এর আগে সাকাল ১০টায় রানিং করবেন। পরদিন তিনি সকালে ব্যাটিং ও বিকালে বোলিং করবেন। এভাবে ৮ই অক্টোবর পর্যন্ত চলবে তার সেন্টার উইকেটে নিজেকে প্রস্তুত করার লড়াই। তবে যতটা জানা গেছে নিষেধাজ্ঞা ওঠার আগেই তাকে যেতে হবে শ্রীলঙ্কায়। অন্তত ১৫ দিন আগে সেখানে থাকতে হবে। কারণ শ্রীলঙ্কা সরকারের নিয়ম অনুসারে তাকে থাকতে হবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে। বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন লঙ্কা সফরে দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে পারবেন সাকিব। খসরা সূচি অনুসারে সফরে দ্বিতীয় ম্যাচ শুরুর কথা ৩১ অক্টোবর। আর ২৯শে অক্টোবরের পর সাকিবের ক্রিকেট খেলতে বাধা নেই। -ডেস্ক