বি. এম. জুলফিকার রায়হান (দিনাজপুর২৪.কম) সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক কালের চিত্র পত্রিকার সম্পাদক ও সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আবু আহমেদ এর বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেছে তালা রিপোর্টার্স ক্লাব ও দক্ষিন অঞ্চল নিউজ ক্লাব’র নেতৃবৃন্দ। উক্ত মিথ্যা ও ভিত্তিহীন মামলার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছে বিবৃতি প্রদানকারী নেতৃবৃন্দ।
বিবৃতি প্রদানকারীরা হচ্ছেন, তালা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মীর জাকির হোসেন, সহ সভাপতি পি.এম. গোলাম মোস্তফা, সাধারন সম্পাদক বি.এম. জুলফিকার রায়হান, যুগ্ম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক এম.এ. জাফর, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. ফারুক হোসেন, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শেখ সিদ্দিক, কার্যকরী সদস্য জয়দেব চক্রবর্ত্তী, প্রভাষক এস.আর. আওয়াল, মো. আপতাফ হোসেন, কে.এম শাহীনুর রহমান, সদস্য মনজুরুল ইসলাম বাবুল, জাকির হোসেন, মনিরুল ইসলাম, মোমরেজ আলম, শাহীনুর রহমান মোড়ল ও আব্দুর রহমান প্রমুখ। এছাড়া অনুরুপ বিবৃতি প্রদান করেছেন, দক্ষিনাঞ্চল নিউজ ক্লাবের সভাপতি এম এ মান্নান, সাধারন সম্পাদক বাহারুল ইসলাম, যুগ্ন-সম্পাদক আ. মজিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম ফরিদ হোসেন পলাশ, কোষাধ্যক্ষ আলমগীর হোসেন, দপ্তর সম্পাদক রিপন হোসাইন, সদস্য জামাল উদ্দীন, মফিদুল ইসলাম, হাসান আলী বাচ্ছু, ইমরান হোসেন, হাফিজুর রহমান ও বাবলুর রহমান প্রমুখ।

তালায় আল্লাহ্ ও রাসুল (সা.)কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে স্মারকলিপি প্রদান
ভোলার বোরহানউদ্দীন উপজেলায় মুসলিম ঐক্য পরিষদের মিছিলে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে নিরিহ মুসলিমদের হত্যার ঘটনায় জড়িত পুলিশদের বিচারের আওতায় আনা, ফেসবুকে মহান আল্লাহ ও রাসুল (সা.) এর কটুক্তিকারী প্রকৃত দোষিদের শাস্তির আওতায় আনা, পুলিশের গুলিতে শহীদদের পরিবারকে ক্ষতিপুরন দেয়া, আহতদের সরকারি ভাবে চিকিৎসা দেয়া, ঘটনায় প্রায় ৫ হাজার মানুষের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার এবং নিরিহ মুসলিমদের পুলিশী হয়রানী না করা সহ একাধিক দাবীতে তালায় স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। তালা উপজেলা ওলামা পরিষদ ও উপজেলা হাজি কল্যাণ ফাউন্ডেশন বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার’র মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। এসময় উপজেলা হাজী কল্যাণ ফাউন্ডেশন ও ওলামা পরিষদ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
স্মারকলিপিতে আরো বলা হয়, বাংলাদেশ একটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির মডেল দেশ। অথচ এই সম্প্রিতি নষ্ট করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির জন্য একটি মহল বিভিন্ন সময়ে মহান আল্লাহ ও রাসুল (সা.)কে নিয়ে ব্যঙ্গ, কটুক্তি এবং অবমাননাকর কাজ করে যাচ্ছে। এই কুচক্রী মহল যাতে আর কোনও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির পায়তারা করতে না পারে সেজন্য একটি কঠোর আইন প্রণয়ন করতে হবে। একই সাথে ভোলা সহ দশের যখানে যেখানে ফেসবুকে বা অন্য কোও ভাবে আল্লাহ ও রাসুল (সা.) নিয়ে কটুক্তিকারী প্রকৃত দোষিকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।