(দিনাজপুর২৪.কম) গত এক মাসের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ১৩৯ জন। নতুন করে আরো ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৪ জনে।
আজ রোববার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এসব তথ্য জানানো হয়।
বুলেটিনে নিজ বাসা থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের পারিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৩৯ জন। এর মধ্যে ৯৬ জন পুরুষ ও ৪৩ জন নারী। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬২১। তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ১ হাজার ৩শ’ ৪০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।
মোট আক্রান্তের পরিসংখ্যান তুলে ধরে সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ৬২১ জনের মধ্যে ৫০ ভাগই ঢাকার। নতুন করে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে তিনজন পুরুষ এবং একজন নারী।

এছাড়া যারা আগে থেকে আক্রান্ত, তাদের মধ্যে আরও তিনজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, দেশে নতুন করে চার জেলায় করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে। জেলা চারটি হলো লক্ষ্মীপুর, লালমনিরহাট, ঠাকুরগাঁও ও ঝালকাঠি। তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এ চারটি জেলায় যারা নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তারা গত এক সপ্তাহের মধ্যে রাজধানী ঢাকা কিংবা নারায়ণগঞ্জ থেকে সেখানে গিয়েছেন। এ কারণেই আমরা বারবার সতর্ক করছি যে এ সময় আপনারা কেউ ভ্রমণ করবেন না।
বুলেটিনে বলা হয়, বর্তমানে সারাদেশে মোট ২০ হাজার ৫২৫জন কোয়ারেন্টাইনে আছেন। তাদের মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৯ হাজার ১১১ জন এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে এক হাজার ৪১৪ জন আছেন।
উল্লেখ্য, গত ৮ই মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়। শুরুর দিকে রোগীর সংখ্যা ৩-৪জন করে বাড়লেও গত এক সপ্তাহে তা কখনো শতক আবার কখনো অর্ধশত করে বাড়ছে। -ডেস্ক