(দিনাজপুর২৪.কম)বাংলাদেশের মানুষের ভোটের অধিকার হরণ করা হয়েছে অভিযোগ করে ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন বলেছেন, এই মাটি সবার। ক্ষমতাসীনরা দেশটাকে দখল করে নিয়েছে। এখানে মানুষের ভোটাধিকার নেই। এ দেশে কারও জমিদারিত্ব আমরা মানব না।

বুধবার দুপুরে পশ্চিম হাজারীবাগের ঝাউচর বাজার থেকে প্রচার শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ভোটে অনিয়মের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো হবে জানিয়ে ইশরাক বলেন, এ দেশে মানুষের কথা বলার অধিকার নেই, বাকস্বাধীনতা নেই, ভোটের অধিকার নেই। সব অধিকার হরণ করা হয়েছে। আমরা বলে দিতে চাই– এটি আর আমরা মানব না।

‘ভোট নিয়ে কোনো ষড়যন্ত্র আমরা মানব না, কোনো বাধা মানব না। ঢাকা শহরে কোনো সন্ত্রাসীকে আমরা স্পেস দেব না। এই দেশটা আপনাদের, এই দেশটা আমাদের সবার। আমরা কারও জমিদারিত্ব মানব না’-যোগ করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী।

পুলিশকে জনগণের পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে ইশরাক হোসেন বলেন, আমি পুলিশ প্রশাসনকে বলব– আপনারা আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করুন। নির্বাচন কমিশনকে যে সাংবিধানিক দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সেটি পালন করেন। আপনারা জনগণের পক্ষে থাকেন।

ঢাকা উত্তর (ডিএনসিসি) সিটির বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে হামলার প্রসঙ্গ টেনে ইশরাক বলেন, আমাদের উত্তরের মেয়রপ্রার্থীর গণসংযোগে পেছন থেকে কাপোরুষিত হামলা চালানো হয়েছে। হামলার প্রায় ২৪ ঘণ্টা হতে চললেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার দেখতে পাইনি।

গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে ১ ফেব্রুয়ারি ধানের শীষে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ১ ফেব্রুয়ারি একটা সুবর্ণ সুযোগ এসেছে আমাদের অধিকার রক্ষা করার। মহান মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র ছিল জনগণ হবে দেশের মালিক, রাষ্ট্রের মালিক। মহান মুক্তিযুদ্ধের সেই অধিকারকে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করার আবার সুযোগ এসেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবীব-উন নবী খান সোহেল, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, মহানগর বিএনপি নেতা কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।-ডেস্ক