হারুন উর রশিদ সোহেল (দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত ঘুড়লে কোথাও আইএসের চিহ্ন খুজে পাওয়া যায় নি। একটি চক্র দেশকে অস্থিথিশীল করার জন্য আইএসের নাম ব্যবহার করে জঙ্গিবাদি কর্মকান্ড ঘটাচ্ছে। কারণ প্রশাসন ইতিমধ্যে যােেদর গ্রেফতার করেছে তারা জেএমবি,হুজি,হিজবুত তাহরিক ও আনসারুলাহ বাংলা টিমের সদস্য। এরা সবাই বাংলাদেশেরই লোক। তাই দেশে কোন আইএস নেই । গতকাল শনিবার বিকালে রংপুর পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে সন্ত্রাস ও জঙ্গি বিরোধী সর্বধর্মীয় প্রীতি সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন এমপি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
স্বরাষ্টমন্ত্রী আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে যখন উন্নয়নের বিপ্লব ঘটছে। শিক্ষা, অর্থনীতি, চিকিৎসাসহ দেশ যখন উন্নয়নের পথে এগিয়ে চলছে, তখনই একটি চক্র ষড়যন্ত্র করে উন্নয়নের পথে বাঁধা সৃষ্টি করছে। এই পরাজিত চক্রটি  ৭৫’  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে স্ব-পরিবারে হত্যা করেছে। তারা গ্রেনেড হামলা করে জননেত্রী শেখ হাসিনাকেও মারতে চেয়েছিল। কিন্তু আল্লাহর রহমত ও জনগণের ভালোবাসায় থাকায় তিনি আজো বেঁচে আছেন। দেশ ও দেশের জন্য কাজ করছেন। বঙ্গবন্ধুর মতো নিজের জীবন বাজি রেখে মানুষের কল্যাণে নিবেদিত আছেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, একশ’র নীচে এসব জঙ্গি সারা  দেশে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে। তবে, বেশীর ভাগ জঙ্গি রংপুর অঞ্চলের । এরা আর্থিক অস্বচ্ছলতাদের টার্গেট করে প্রলোভনে ফেলে মগজ ধোলাই দিয়ে তাদের নিকট ভিরায়।  সেই সাথে পবিত্র ধর্ম ইসলাম কে কুলষিত করে। রংপুরবাসী আজ এই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে  সোচ্ছার হয়েছে। সবাই মিলে জঙ্গিবাদ কে প্রতিহত করতে হবে।
পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রীতি সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেয়, এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, রসিক মেয়র সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুন্সী এমপি, আইজিপি একেএম শহীদুল হক, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, শোলাকিয়া ঈদগাহ্ ঈমাম মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ, রংপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, স্বামী ধ্র“বেশানন্দ মহারাজ,সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো, বিশপ সেবাষ্টিয়ান টুডু ও ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ মাওলানা ইব্রাহিম খলিল রেজভী, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাফিয়ার রহমান সাফি, রংপুর চেম্বারের সভাপতি আবুল কাশেম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু প্রমূখ।