(দিনাজপুর২৪.কম) শরীয়তপুরে পল্লী বিদ্যুতের ছিঁড়ে পড়া তারে জড়িয়ে দুই হাত হারানো সিয়াম খানকে ৫০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালত। আদেশ পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্য সিয়ামের পরিবারকে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডকে এ অর্থ পরিশোধ করতে হবে। বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট আজ মঙ্গলবার এ-সংক্রান্ত রুল নিষ্পত্তি করে এ রায় দেন।
রিট আবেদনকারীর পক্ষের আইনজীবী সিফাত মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, সিয়ামের পরিবারকে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫০ লাখ টাকা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

‘দুটি হাত কেটে ফেলতে হয়েছে সিয়ামের’ শিরোনামে গত ২৪ এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন ছাপা হয়। এটিসহ আরেকটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে গত মে মাসে এ বিষয়ে আদালতে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সিফাত মাহমুদ। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদালত রুলসহ অন্তর্বতী আদেশ দেন। প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর ওই এলাকায় যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবহেলা ঘোষণা করা হবে না- রুলে তা জানতে চাওয়া হয়। এছাড়া সিয়াম খান আহত হওয়ার জন্য বিবাদীদের কেন দায়ী করা হবে না এবং সিয়াম খানকে কেন ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না- তাও জানতে চাওয়া হয় রুলে।
পরে গত ২৯ মে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য (ডিস্ট্রিবিউশন অ্যান্ড সাপ্লাই), জেনারেল ম্যানেজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, নড়িয়া সাব-জোনাল অফিস শরীয়তপুরের সহকারী মহাব্যবস্থাপককে (অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার, ও অ্যান্ড এম) আদালতের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।
৩০ মে শুনানিতে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আইনজীবী আদালতে বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ তদন্ত চলছে’। ওই দিন আদালত ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে তাদের অব্যাহতি দিয়ে ৪ জুলাই তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। এর ধারাবাহিকতায় আজ তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করা হলে আদালত এ রায় দেন। -ডেস্ক