(দিনাজপুর২৪.কম) প্রতিদিন রান্নাঘরে কাজ করতে করতে রেগে অগ্নিশর্মা হয়ে যান? তাহলে এমন কিছু রান্নাঘরের কথা জানুন যেগুলোকে রাক্ষুসে বললেও কম বলা হয়। বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্র এবং জনসংখ্যায় বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত। বলা হচ্ছে IRCTC-র রান্নাঘরের কথা।

মুম্বইয়ে এই রান্নাঘরে প্রতি ঘণ্টায় ভাজা হয় ১৫০০ পরোটা !

অক্ষয় পাত্র বলে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আছে যারা সরকারের মিড ডে মিল প্রকল্পের সঙ্গে জড়িত। তাদের ভারত জুড়ে মোট ২০ টা রান্নাঘর আছে যেখানে রোজ লাগে ১৫ টন চাল‚ ৪ টন ডাল‚ ৮ টন সব্জি। সেসব জায়গায় ভোর চারটায় রান্না শুরু হয়। আটটার মধ্যে শিক্ষার্থীদের খাবার তৈরি হয়। প্রতিদিন খাবার পরিবেশিত হয় প্রায় ১.৪ মিলিয়ন শিক্ষার্থীর প্লেটে।

কর্নাটকের হুবলিতে আছে এক এনজিও। সেখানে ৫ ঘণ্টারও কম সময়ে তৈরি হয় দেড় লাখ লোকের খাবার।

শ্রী সাই সংস্থান প্রসাদালয় আছে মহারাষ্ট্রের শিরডিতে। সেখানে ৭৩ টি সোলার ডিশ নিয়ে দেশের বৃহত্তম সোলার কিচেন তৈরী হয়।

TajSATS এয়ারলাইন কেটারিং সার্ভিস এ প্রতিদিন ব্যবহার করে ১.২ লাখ ডিম।
কর্নাটকের বিখ্যাত ধর্মস্থান মঞ্জুনাথ মন্দিরে রোজ প্রসাদ পান ৫০ হাজার মানুষ। বিশেষ উৎসবে সংখ্যাটা পৌঁছায় এক লাখেও।
সব রান্নাই হয় গোবরগ্যাসে। রান্নাঘরের উচ্ছিষ্ট থেকেই তৈরি হয় মন্দিরের বিশাল চাষজমির সার। -ডেস্ক