মাহবুবুল হক খান (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপপাতালে নতুন সেবা তত্বাবধায়ক হিসেবে যোগদান করেছেন বেগম শামীম আরা। জেনারেল হাসপপাতালে সেবা তত্বাবধায়ক হিসেবে যোগদানকারী প্রথম নারী তিনি। যোগদানের পর হাসপাতালের উপ-সেবা তত্বাবধায়কসহ হাসপাতালের নার্সিং কর্মকর্তারা তাঁকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।
বৃহস্পতিবার (২৮ মে) বেলা ১২টায় সেবা তত্বাবধায়ক হিসেবে বেগম শামীম আরা নতুন কর্মস্তলে যোগদান করেন। এর আগে এই হাসপাতালে উপ-সেবা তত্বাবধায়কের পদ ছিল। পরে সেবা তত্বাবধায়কের পদ সৃষ্টি হলে মোছাঃ সুরাইয়া জেবীন ভারপ্রাপ্ত সেবা তত্বাবধায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
নতুন কর্মস্থলে যোগদাদের পর হাসপাতালের উপ-সেবা তত্বাবধায়ক খন্দকার সুফিয়া আক্তার বানু’র নেতৃত্বে হাসপাতালের নার্সিং কর্মকর্তারা তাঁকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের নার্সিং সুপারভাইজার ও স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদ-স্বানাপ জেনারেল হাসপাতাল শাখার সভাপতি মোছাঃ লুতফা বেগম, স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদ-স্বানাপ জেনারেল হাসপাতাল শাখার সহসভাপতি সিনিয়র স্টাফ নার্স সিদ্দিকা বেগম, স্বানাপ জেনারেল হাসপাতাল শাখার সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র স্টাফ নার্স ফেরদৌসী বেগম শিল্পী, সিনিয়র স্টাফ নার্স মোছাঃ আনিছা খাতুন, নার্সিং সুপারভাইজার মো. ইউসফ আলী, সিনিয়র স্টাফ নার্স কাজী মো. শাহিনসহ হাসপাতালের অন্যান্য নার্সিং কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
নতুন সেবা তত্বাবধায়ক বেগম শামীম আরা ১৯৮৬ সালের ২২ মে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করেন। সেখান থেকে তিনি চাপাইনবাবগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে একই পদে দায়িত্ব পালন করেন। সেখান থেকে তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কিছু দিন দায়িত্ব পালনের পর পুনরায় তিনি তাঁর প্রথম কর্মস্থল গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করেন। সেখান থেকে তিনি পদোন্নতি পেয়ে ২৮ মে ২০২০ তারিখ বৃহস্পতিবার দুপুরে সেবা তত্বাবধায়ক হিসেবে তাঁর নতুন কর্মস্থল দিনাজপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপপাতালে যোগদান করেন।
বেগম শামীম আরা ব্যক্তিগত জীবনে এক ছেলে ও মেয়ে সন্তানের জননী। তাঁর মেয়ে একজন দন্ত চিকিৎসক রংপুরে কর্মরত ও ছেলে সফট ওয়ার ইঞ্জিনিয়ার একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। আর তাঁর স্বামী একজন অবসর প্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা।