স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) অন্যান্য বাবের মত এবারও সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে দিনাজপুর সদর উপজেলাসহ কয়েকটি উপজেলায় আজ মঙ্গলবার ঈদুল ফিতরের আগাম ঈদের নামাজ আদায় করেছেন কয়েকশ মুসল্লি। দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে, চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা রাবার ড্যাম এলাকায়, কাহারোল উপজেলার ভবানীপুর গ্রামসহ প্রায় ২০টি গ্রামের কয়েকশ’ পরিবারের মানুষ ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন।
মঙ্গলবার (৪ জুন) সকাল পৌনে ৮টায় দিনাজপুর শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন শহর ও আশপাশের কয়েকটি এলাকার দুই শতাধিক পুরুষ, মহিলা ও শিশু। এ জামাতে ইমামতি করেন দিনাজপুর সদর উপজেলার রাণীগঞ্জ গ্রামের জাহিদুল ইসলাম’র ছেলে ঢাকার মাদরাসাতুল হাদিস’র আছ্ছানুভিয়াতুস সানি’র (উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষ) ছাত্র মাওলানা মো. সাইফুল ইসলাম। এছাড়া জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতারা রাবার ড্যাম, ফতেহ জংপুর গ্রামে, কাহারোল উপজেলার ভবানীপুর, ১৩ মাইল গড়েয়া, বিরল উপজেলার বালান্দর, পাঁচপাড়া. মাদববাটি ও বিরামপুর উপজেলার একটি গ্রামসহ প্রায় ২০টি গ্রামের মানুষ আজ মঙ্গলবার ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।
শহরের চারুবাবুর মোড়স্থ পার্টি সেন্টারে নামাজ শেষে মুসল্লিদির উদ্দেশে খুৎবায় একই দিনে রোজা রাখা, ঈদ পালন করার যৌক্তিকতা তুলে ধরে সবাইকে একই দিনে রোজা রাখা ও ঈদ পালনের আহবান জানানো হয়। এ সময় পবিত্র কুরআনের আয়াতের আলোকে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানানো হয়। এছাড়া কুরআন ও হাদিসের আলোকে নিজেদের জীবন গড়ার জন্য মুসল্লিদের প্রতি আহবান জানানো হয়।
এই নামাজ আদায়কারীদের অনেকেই জানান, দিনাজপুরে প্রথমে শুধু চিরিরবন্দর উপজেলায় সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদের নামাজ আদায় করা হতো। কিন্তু বর্তমানে জেলার ১৩ উপজেলায় বিভিন্ন গ্রামে আগাম ঈদের নামাজ আদায় করা হয়।
উল্লেখ্য, দিনাজপুর জেলায় ২০০৭ সাল থেকে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদের নামাজ আদায় করে আসছেন মুসলমানদের একটি অংশ।