ওয়াহেদুর রহমান (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। পাশের হার ৮৪ দশমিক ১০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ২৩ জন। এবারে পাশের হার বাড়লেও কমেছে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির হার। ৬ মে সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মো. তোফাজ্জুর রহমান। দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. তোফাজ্জুর রহমান জানান, এই বোর্ডের অধীনে ২০১৯ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় ১ লাখ ৯৮ হাজার ৮০৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে অংশগ্রহণ করে ১ লাখ ৯৭ হাজার ৫৪৬ জন পরীক্ষার্থী। এদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয় ১ লাখ ৬৬ হাজার ১৩৫ পরীক্ষার্থী। গড় পাশের হার ৮৪ দশমিক ১০ শতাংশ। পরীক্ষায় ৩১ হাজার ৪১১ জন পরীক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে। বরাবরের মতো এবারেও ছাত্রীদের পাশের হার বেশি। ছাত্রীদের পাশের হার ৮২ দশমিক ৬৬ শতাংশ আর ছাত্রদের পাশের হার ৮২ দশমিক ৬৩ শতাংশ। জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা কমেছে। এবারে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ২৩জন। এদের মধ্যে ছাত্রীদের তুলনায় ছাত্রদের জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বেশি। জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্র ৪ হাজার ৮৪১ জন এবং ছাত্রী ৪ হাজার ১৮২ জন। বিজ্ঞান বিভাগে ৮৯ হাজার ৬৬৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৮৪ হাজার ১৮৭ জন। উত্তীর্ণদের মধ্যে ৪৮ হাজার ১৫১ জন ছাত্র ও ৩৬ হাজার ৩৬ জন ছাত্রী। বিজ্ঞান বিভাগে গড় পাশের হার ৯৩ দশমিক ৮৯ শতাংশ। মানবিক বিভাগে ১ লাখ ২ হাজার ৬৫৩ জনের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৭৭ হাজার ৪৩০ জন। এদের মধ্যে ৩২ হাজার ৬৪৩ জন ছাত্র ও ৪৪ হাজার ৭৮৭ জন ছাত্রী। মানবিকে বিভাগে গড় পাশের হার ৭৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ। তবে বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগে ছাত্রীদের পাশের হার ছাত্রদের তুলনায় বেশী। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ৫ হাজার ২২৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৪ হাজার ৫১৮ জন। এদের মধ্যে ৩ হাজার ২৬৮ জন ছাত্র ও ১ হাজার ২৫০ জন ছাত্রী। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে গড় পাশের হার ৮৬ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এবারে গত বারের তুলনায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১০ হাজার ৭৫৫ জন পেয়েছে, এবার ৯ হাজার ২৩ জন। এবারে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮ হাজার ৯২৩ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ৪ হাজার ৮০৭ জন ও ছাত্রী ৪ হাজার ১১৬ জন। মানবিক বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮২ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ২১ জন ও ছাত্রী ৬১। এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে মাত্র ১৮ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ১৩ জন ও ছাত্রী মাত্র ৫ জন। শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. তোফাজ্জুর রহমান জানান, এবছর ৫৭০ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল এবং ৮৭ জন পরীক্ষার্থী বহিষ্কার হয়েছে। এবারে একজনও পাশ করেনি এমন বিদ্যালয়ের সংখ্যা মাত্র ১টি যা গতবার ছিল মাত্র ৫টি। শতভাগ পাশ করেছে এমন বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১৩৮ যা গতবারে ৮৪টি। তিনি জানান, গতবারের তুলনায় সার্বিক ফলাফল কিছুটা ভাল হয়েছে। তবে আগামীতে আরো ভাল ফলাফল উপহার দেয়া হবে বলে জানান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মো. তোফাজ্জুর রহমান। উলে¬খ্য, এবারে দিনাজপুর বোর্ডে অধীনে রংপুর বিভাগের ৮টি জেলার ২ হাজার ৬৩০টি বিদ্যালয় হতে ১ লাখ ৯৭ হাজার ৫৪৬ পরীক্ষার্থী ২৬৭টি কেন্দ্রের মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। উলে¬খ্য, এটি দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দশম এসএসসি পরীক্ষা।