(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর পার্বতীপুর জোনাল অফিসে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির কারনে গ্রাহকরা চরম হয়রানীর শিকার হচ্ছে। কোন সদস্য ডিজিএম এর কাছে স্বরনাপন্ন হলেও তিনিও দূর্বাবহারসহ নানা হয়রানী মুলক কথা বার্তাসহ মন্ত্রীর সুপারিশও তার কাছে কিছু না বলে অভিযোগ করলেন ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক নুর ইসলাম। অভিযোগে জানা গেছে, দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর পার্বতীপুর জোনাল অফিসে বিদ্যুৎ সংযোগ নেয়ার জন্য বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করা হলে, ডিজিএম বলেন যে, অনলাইনে আবেদন দেয়া হয়েছে। অনলাইন থেকে আবেদন করে হাট কপি জমা দেন। এ নিয়ে গ্রাহকগণ বিভিন্ন অনলাইনের দোকানে গিয়ে নানা হয়রানীর স্বীকার হতে হয় বলে অভিযোগকারী উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের বড়চন্ডিপুর কালিকাবাড়ী গ্রামের আব্দুল হালিমের পুত্র ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক নুর ইসলাম বলেন। তিনি অভিযোগে আরো উল্লেখ করেছেন, ডিজিএম বড়হরিপুর খাজির উদ্দিনের পুত্র আজগার আলীর বাড়ীতে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য ২ হাজার টাকা প্রদানের পর বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। গত ২০১১ সাল থেকে অদ্যবদি গ্রামের প্রায় ২০টি পরিবার বিদ্যূৎ সংযোগের জন্য আবেদন করেন। আবেদনের পরে ইলেকট্রিশিয়ান শাহীনুর ডিজিএমকে টাকা দিতে হবে বলে প্রতি বাড়ী থেকে ২ থেকে ৩ হাজার টাকা উৎকোচ গ্রহণ করে। ইতিমধ্যে ইলেকট্রিশিয়ান শাহীনুর প্রায় বাড়ীতে ওয়ারিংও সম্পন্ন করেছেন। কিন্তু রহস্যজনককারনে অদ্যবদি সংযোগ প্রদান করা হয়নি। গ্রামবাসী অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, গত রবিবার মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে রাত অনুমান সাড়ে ৯টার দিকে একই গ্রামের কাসেম আলীর পুত্র কাওছার এর বাড়ীতে লাইনম্যান আমিনুল ইসলাম বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছেন। এ ঘটনা সকালে জানাজানি হলে গ্রামবাসীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। -(ডেস্ক)