মোঃ ইউসুফ আলী (দিনাজপুর২৪.কম) ৭ ও ৮ এপ্রিল ২দিনব্যাপী দিনাজপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট কনফারেন্স রুমে সরকারি ব্যয়ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরণ কর্মসূচি ও জেলা হিসাবরক্ষন অফিস দিনাজপুর’র আয়োজনে নতুন বাজেট ও হিসাবরক্ষন শ্রেণীবিন্যাস পদ্ধতির (বিএসিএস) ওপর জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের (ডিডিও) প্রশিক্ষন কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে।
শনিবার উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুছ ছবুর। রংপুর বিভাগীয় ডেপুটি ডিভিশনাল কন্ট্রোলার অব একাউন্টস্ মোঃ রাশেদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ ও দিনাজপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ মোঃ মোসলিম উদ্দীন। ২দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষন কর্মশালায় দিনাজপুরের জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের ২৫ জন কর্মকর্তা প্রশিক্ষনার্থী হিসেবে অংশ নেন। ২দিনব্যাপী প্রশিক্ষণে মাষ্টার ট্রেইনার হিসেবে প্রথম প্রশিক্ষক ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী প্রধান ভূঞা মোহাম্মদ রেজাউল রহমান ছিদ্দিকি ও দ্বিতীয় প্রশিক্ষক ছিলেন স্থানীয় সরকারি বিভাগের সহকারী প্রধান মোঃ সাইফুর রহমান। সরকারি ব্যয় ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরণ (পিইএমএস) কর্মসূচি অর্থ বিভাগের অধিন একটি সরকারি আর্থিক ব্যবস্থাপনা সংস্কার কার্যক্রম। সম্পূর্ণ সরকারি অর্থে দেশীয় বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে পরিচালিত এই কর্মসূচি থেকে উদ্ভাবিত সরকারি কর্মচারীগণের অনলাইনে বেতন নির্ধারণ, অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীগণের অনলাইনে পেনশন পুননির্ধারণ, ইএফটি-এর মাধ্যমে বেতন-ভাতা প্রদান, আইবিএএস প্রবর্তনসহ ৬টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ সরকারি আর্থিক খাতে ইতোমধ্যে ব্যাপক অবদান রেখেছে। সারা দেশের লক্ষাধিক সরকারি দপ্তর/প্রতিষ্ঠানের ১৬ লক্ষ কর্মচারী এসব উদ্যোগের মাধ্যমে সরাসরি উপকৃত হচ্ছেন। এছাড়া বাজেট ও হিসাবরক্ষণ শ্রেণীবিন্যাস পদ্ধতির প্রবর্তন, ই-চালানসহ আরও উদ্ভাবনী উদ্যোগ বাস্তবায়নের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এসব উদ্ভাবনী উদ্যোগ আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠাসহ সরকারি অর্থের দক্ষ ব্যবস্থাপনা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবে।