শাহিনুর রহমান (দিনাজপুর২৪.কম) উচ্চ আদালতের আদেশ জালিয়াতি মামলায় দিনাজপুরের ২৭ ইটভাটা মালিকের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আজ সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে দিনাজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে শুনানী শেষে বিচারক আজিজ আহমদ ভুইয়া এই আদেশ দেন।
আসামীরা হলেন, দিনাজপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক ও পার্বতীপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি  ও ব্যবসায়ী এ জেড এম রেজয়ানুল হক, ফুলবাড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন, যমুনা টিভির দিনাজপুর প্রতিনিধি মাহফুজুর রহমান সহ মোট ২৭ জন ইটভাটার মালিক রয়েছেন। উচ্চ আদালতের রীটের আদেশ নামা জালিয়াতি করে তারা ইটভাটা পরিচালনা করে আসছিল।
উল্লেখ্য, গত ২০ জুন উচ্চ আদালতের নির্দেশে দিনাজুপর, ঠাকুরগাও, নীলফামারী, পঞ্চগড় ও পাবর্তীপুরের ৩১ ইটভাটা মালিকের বিরুদ্ধে এসআই আব্দুল হামিদ পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর আগে উপজেলার হয়বৎপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন যমুনা ব্রিকস্ এর ধোয়ায় দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী মাইশা শ্বাস কষ্ট ও চক্ষু রোগে আক্রান্ত হয়। ফলে ঐ শিক্ষার্থী ভাটার বিভিন্ন ক্ষতিকারক দিক তুলে ধরে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক কে একটি চিঠি লেখে। ঐ চিঠিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম এলাকা পরিদর্শনকালে ব্যাপক অনুসন্ধান চালান এবং কেঁচো খুড়তে সাপ বেরিয়ে পড়ে।
আসামী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন দিনাজপুর বারের সভাপতি এড.নুরুজ্জামান জাহানী ও সরকার পক্ষের পিপি ছিলেন, আজিজুল ইসলাম জুগলু।