(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবী করার সময় ২টি ধারালো চাকুসহ হাতে নাতে ধরা পড়েছে যাবৎজীবন জেল খাটা কুখ্যাত ডাকাত ও চাঁদাবাজ মোঃ রফিকুল ইসলাম। জানা গেছে রোববার রাতে শহরে ঈদগাহ বস্তি এলাকায় সরকারী তালিকা ভুক্ত ঔষধ ও মেডিকেল সরঞ্জাম সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান আলেয়া কর্পোরেশনের বিভাগীয় কার্যালয় মোঃ রফিকুল ইসলামসহ আরো দুইজন চাঁদাবাজ ধারালো বড় বড় দুটি চাকু নিয়ে প্রবেশ করে। এসময় ডাইরেক্টর রফিকুল আউয়াল রবি’র পেটে চাকু ধরে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। রবিউল সু-কৌশলে বাসা থেকে টাকা আনার কথা বলে বাইরে গিয়ে তার লোকজনকে নিয়ে আসে। ইতিমধ্যে ঘটনা বেগতিক দেখে মোঃ রফিকুল ইসলামের অপর দুই চাঁদাবাজ সঙ্গী পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও রফিকুল ইসলামকে হাতে নাতে আটক করা হয় এবং ওই রাতে তাকে কোতয়ালী থানায় সৌর্পদ করা হয়। এব্যাপারে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় একটি চাঁদাবাজি দায়ের করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, মোঃ রফিকুল ইসলাম ইতিপূর্বে একজন কুখ্যাত যাবৎ জীবন সাজা প্রাপ্ত ডাকাত হিসেবে নীলফামারী জেল কারাগার থেকে পালিয়ে যায় এবং পরবর্তীতে ধরা পড়ে। জেল আইন অনুযায়ী তাকে লাল টুপি কয়দী হিসেবে চিহ্নিত করে রাজশাহী সেন্ট্রাল জেলে প্রণয় করা হয়। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর সে এখন বিভিন্ন স্থানে এবং প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজি করে বেড়াচ্ছে বলে জানা গেছে। তার পিতার নামঃ মৃত হাসিম উদ্দীন, গ্রামঃ ভাকুরা (ধনীপাড়া), পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও জেলা।