(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে তের দিনব্যাপী ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলা সমাপ্ত হয়েছে। দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও সামাজিক বন বিভাগ এই ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলার আয়োজন করে। রোববার (৩০ আগষ্ট) বিকেলে স্থানীয় গোর-এ-শহীদ বড়ময়দানে দিনাজপুর সামাজিক বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল আউয়াল সরকারের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মীর মো. খায়রুল আলম।  অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ রুহুল আমিন ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ আবু রায়হান মিঞা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ গোলাম মোস্তফা।
দিনাজপুর সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. মতলুবুর রহমানের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষকলীগ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, জেলা নার্সারী মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও কসবা আদর্শ নার্সারীর স্বত্বাধিকারী মো. ইসাহাক আলী, এসিআই ক্রস কেয়ারের সেলস ম্যানেজার মো. গোলাম রসুল মেহেদী, আরডিআরএস’র কৃষি কর্মকর্তা সৈয়দা নাজমা পারভীন প্রমূখ।
প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের দেশ ছোট অথচ অনেক মানুষ। তাই দেশের কোন জায়গা খালি রাখা যাবে না। গাছ লাগিয়ে প্রতিটি খালি জায়গা ভরে দিতে হবে। সবুজ-শ্যামলে দেশটাকে ভরে দিতে হবে। আমাদের নৈতিকতা সবুজে পরিণত করতে হবে। জেলা প্রশাসক বলেন, আপনারা গাছ লাগাবেন ও পরিচর্যা করবেন।
পুলিশ সুপার বলেন, নার্সারী ব্যবসা গোটা মানব জাতি ও প্রাণীকুলের সেবক। আর গাছ সমস্ত প্রাণীকুলের নেয়ামত। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের কোন বিকল্প নেই। বৃক্ষ নিধন করে পরিবেশ নষ্ট করার অধিকার আমাদের কেউ দেয়নি। তাই পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বেশী করে গাছ লাগাতে হবে।
আলোচনা শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অন্যান্য অতিথিদের সাথে নিয়ে বৃক্ষ মেলায় অংশগ্রহণকারী স্টলের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকারকারী কসবা আদর্শ নার্সারী, দ্বিতীয় স্থান অধিকারকারী বনায়ন নার্সারী ও তৃতীয় স্থান অধিকারকারী ইলিয়াস নার্সারী মালিকের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন। এছাড়া মেলায় অংশগ্রহণকারী সকল স্টল মালিকদের মাঝে সনদপত্র ও ক্রেষ্ট বিতরণ করেন। পরে আগত অতিথির মাঝেও ক্রেষ্ট বিতরণ করা হয়।