dinajpur.dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর ১৩ উপজেলায় ১০ টাকা কেজি চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম হওয়ার কারণে ১১ হাজার ৩৩২টি কার্ড বাতিল করা হয়েছে। ৫ জন ডিলার পরিবর্তন ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।  গত ১৯ নভেম্বর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মাসিক সমন্বয় সভায় জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এস. এম কায়ছার আলী জানান হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণের কার্যক্রম ৭ সেপ্টেম্বর শুরু হয়। জেলার ১৩টি উপজেলায় ১০২ টি ইউনিয়নে ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৮৮ জন হত দরিদ্র পরিবারকে ১০ টাকা কেজি দরে মাসে ৩০ কেজি চাল দেয়ার জন্য কার্ড তালিকাভূক্ত করা হয়। এই কার্ড তালিকাভুক্তির সময় অনিয়ম ও দুর্নীতি করে স্বচ্ছল ব্যক্তিদের নাম হত দরিদ্রদের তালিকায় দেয়া হলে তা নিয়ে ব্যাপক অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় গত রোববার পর্যন্ত ১১ হাজার ৩৩২টি ১০ টাকা কেজি চালের কার্ড বাতিল করা হয়েছে। স্বচ্ছল ব্যক্তিদের কার্ড বাতিল করে সেখানে প্রকৃত হত দরিদ্রদের নাম তালিকাভুক্ত করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, জেলার ১৩টি উপজেলায় চাল বিক্রির জন্য ২৩৪ জন ডিলার নিয়োগ করা হয়েছে। এর মধ্যে দুর্নীতির অভিযোগে ৫ জন ডিলারশীপ বাতিল করা হয়েছে। জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলায় ২ জন এবং খানসামা, বীরগঞ্জ ও বিরলে ১ জন করে ডিলার রয়েছেন।  এই অনিয়মের আশ্রয় নেয়ায় ডিলারসহ ১০ টাকা কেজি চাল কেনার অভিযোগে ৭ জনের বিরুদ্ধে ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জেলা দুর্নীতি দমণ কমিশনের কর্মকর্তারা মামলা তিনটি তদন্ত করছেন। দিনাজপুর জেলায় ১০ টাকা কেজি চাল বিক্রির জন্য ৫ মাসের বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২১ হাজার মেট্রিক টন। এর মধ্যে গত রোববার পর্যন্ত চাল বিক্রির পরিমাণ ১০ হাজার ৬৩৯ মেট্রিক টন।