-ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) রমজান মাসে দিনাজপুরে মদ ও মাদক জাতীয় দ্রব্য বিক্রি না করতে এবং মদের দোকান ও পানশালা বন্ধের আদেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মাহমুদুল আলম। এই আদেশ লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। জেলা প্রশাসন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১৮ এপ্রিল জেলার আইনশৃঙ্খলা সভায় রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষায় জেলার মদের দোকানগুলো বন্ধের দাবি ওঠে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ওই সভায় লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকানগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আজ মঙ্গলবার থেকে ৩০ দিনের জন্য মদের দোকান ও পানশালা বন্ধের আদেশ বহাল হয়। গতকাল সোমবার দিনাজপুর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালককে আদেশ বাস্তবায়ন করে নিয়মিত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য এবং সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) বিষয়টি মনিটরিং করার জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিষয়টি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বিভাগীয় কমিশনারকে অবহিত করা হয়েছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের দিনাজপুর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলার বিরামপুর, হাকিমপুর, ফুলবাড়ী, পার্বতীপুর, বীরগঞ্জ ও সদর উপজেলায় মোট লাইসেন্সপ্রাপ্ত ছয়টি মদের দোকান রয়েছে।

এ ছাড়া সদর উপজেলায় একটি লাইসেন্সপ্রাপ্ত ‘বিলেতি’ মদের দোকান রয়েছে। জেলায় মদপানের লাইসেন্স রয়েছে ২ হাজার ২৫০ জনের। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের দিনাজপুর কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. রাজিউর রহমান  বলেন, জেলা প্রশাসকের আদেশ বাস্তবায়নে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। হাকিমপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ বলেন, জেলা প্রশাসকের এ উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এ আদেশ বাস্তবায়নে শুধু রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় নয়, মাদকের অপব্যবহার রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।  ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবদুস সালাম চৌধুরী বলেন, জেলা প্রশাসকের আদেশ পাওয়ার পরপরই ফুলবাড়ীর লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদের দোকানের মালিককে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। দিনাজপুর জেলায় পবিত্র মাহে রমজানে মদ এবং মাদক বিক্রি বন্ধের নির্দেশকে স্বাগত জানিয়ে দিনাজপুর জেলা প্রশাসককে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা।