মোঃ ইউসুফ আলী (দিনাজপুর২৪.কম)  জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ হাসান ফেরদৌস সরকার বলেছেন, দিনাজপুরে দেশীয় প্রজাতির মৎস্য উৎপাদনে ব্যাপক সাফল্যে এগিয়ে যাচ্ছে। জেলার উন্মুক্ত জলাশয় নদী, খাল-বিল ও জলাশয়ে দেশীয় প্রজাতির মাছ উৎপাদন চলছে। বীরগঞ্জের ঢেপা নদীতে ৩ কিঃ মিঃ এলাকায় মাছের অভয়ারণ্য গড়ে উঠেছে। ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউপি এবং বিরামপুর উপজেলার পলিপ্রয়াগপুর ইউপিতে নিচু জমিতে অর্থাৎ ধানের জমিতে মাছ চাষে চাষীরা ব্যাপক সফল হয়েছে। তিনি বলেন, দিনাজপুরে বাৎসরিক মাছের চাহিদা ৬২ হাজার মেঃ টন এবং উৎপাদন হয় ৪০ হাজার মেঃ টন। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে (২৮ জুলাই হতে ৩ আগষ্ট) ১ আগষ্ট শনিবার শহরের বালুবাড়ীস্থ মৎস্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে “সাগর নদী সকল জলে, মাছ চাষে সোনা ফলে’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দিনাজপুর জেলা মৎস্য অধিদপ্তর আয়োজিত স্বাদু পানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের ৪র্থ স্থান অর্জন- মাছে ফরমালিন অপব্যবহার রোধ- জলাশয় সংরক্ষণে সচেতনতা সৃষ্টির বিষয়ে দিনাজপুরের গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের সাথে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মৎস্য দপ্তরের সহকারী পরিচালক কাজী আবেদ লতিফ, সিনিয়র সদর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মামুনুর রশিদ, মৎস্য জরিপ কর্মকর্তা মোঃ ফয়জার রহমান, পার্বতীপুর মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারের খামার ব্যবস্থাপক মোঃ ইসাহাক আলী, বীরগঞ্জ সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কালী পদ রায়, মৎস্য বীজ খামারের খামার ব্যবস্থাপক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন প্রমুখ।