ড. মুহাদ্দিস মোঃ এনামুল হক (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর বিরামপুর উপজেলার চকশুলবান গ্রামের পান ব্যবসায়ী আব্দুর রউফ (৩৮) কে দূর্বত্তরা গলায় রশি পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার পর তার লাশ গ্রামের বাড়ির পার্শ্বে শালবাগানে ফেলে রেখে যায়। পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মৃত ব্যক্তির পাশে পড়ে থাকা ১টি মোবাইল ফোন ও তার ব্যবহৃত চুরি হওয়া মটর সাইকেলের প্লাগ উদ্ধার করে। বুধবার পান দোকানের কর্মচারী সুমনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
এলাকাবাসী ও থানাসূত্রে জানা গেছে,  পান ব্যবসায়ী আব্দুর রউফ ও তার কর্মচারী সুমন গত মঙ্গলবার কুন্দনহাট থেকে পান বিক্রি করে সন্ধ্যায় কেটরা বাজারে তার নিজ দোকানে আসলে, এসময় দূর্বত্তরা তার মটরসাইকেল প্লাগটি চুরি করে।
আব্দুর রউফ মটরসাইকেলটি জোতবানী ইউনিয়ন পরিষদে জমা রেখে রাত ১১ টায় বাড়ি যাওয়ার পথে দূর্বত্তরা গলায় ও কোমরে রশি পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে পুলিশের এস,আই শাহআলম ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।
পুর থানার ওসি মো. আমিরুজ্জামান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কি কারনে রউফকে হত্যা করা হয়েছে তা তদন্ত সাপেক্ষে উদ্ধার করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।