স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে লবণ নিয়ে লংকাকান্ড ঘটেছে। লবনের দাম বেড়ে যাবে বলে সাধারণ মানুষরা শহরের আনাচে-কানাচে লবণ কিনতে দেখা গেছে । লবণ কিনতে যেয়ে আহতও হয়েছেন কেউ কেউ।
দিনাজপুরে গুজব ছড়িয়ে পড়ায় লবন ১২০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। সাধাণ মানুষ দোনাকে দোকানে লবন ক্রয়ের জন্য ভীড় জমাচ্ছে। অপরদিকে এক শ্রেণীর মুনাফা লোভী ব্যবসায়ী দোকান থেকে লবন সরিয়ে ফেলেছে। এ কারণে টাকা দিয়েও লবন পাচ্ছেনা অনেকে। বেশী দামে লবণ বিক্রির অভিযোগে শহরের বাহাদুর বাজারে দুটি দোকানে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সকাল থেকে গুজব ছড়িয়ে পড়ে লবণের সংকট তৈরি হয়েছে। বাজারে লবণ পাওয়া যাচ্ছেনা। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পর অনেক দোকানদার লবন দোকান থেকে সরিয়ে ফেলে গোডাউনে মজুদ রেখে বেশী দামে লবণ বিক্রি করছে। এতে সাধারণ মানুষ লবণ ক্রয়ের জন্য ভীড় জামায়। ক্রেতারা সর্বনিম্ন ৫ কেজি থেকে সর্বোচ্চ ২০ কেজি করে লবণ কিনছেন।
শহরের দপ্তরী পাড়া মহল্লার ভ্যানচালক আকবর আলী বলেন, মানুষের মুখে শুনলাম পেঁয়াজের মতো লবণের দামও বাড়বে। তাই ২ কেজি লবণ কিনলাম। শহরের মালদহপট্রি মিলন বস্ত্রালয়ের মালিক মিলন শহরের পুরাতন বাহাদুর বাজার থেকে ৫ কেজি লবণ কিনে নিয়ে যাচ্ছিলেন। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, পেঁয়াজ আতংকে লবণ কিনে রাখলাম। যদি না পাওয়া যায়। পাড়া মহল্লার দোকান গুলোতে সবচেয়ে বেশী দামে ১৬০ থেকে ২০০ টাকা কেজি দরে লবণ বিক্রি হচ্ছে। অপরদিকে পার্বতীপুর উপজেলার বাসিন্দা খুরশেদ আলম জানান, আমবাড়ী বাজারে বাজারে আব্দুল আজিজ শাহ মার্কেটে আমিনুল ষ্টোরে ১৪০ টাকা কেজি দরে লবণ বিক্রি হচ্ছে। এদিকে গুজব ছড়িয়ে পড়ায় দিনাজপুরের ১৩ উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা বাজার পরিদর্শণে বের হন। এ ছাড়াও দেশে লবণের কোন ঘাটতি নেই জানিয়ে আতংকিত হওয়ার ওকোন কারণ নেই, এটা গুজব জানিয়ে মাইকিং করা হয়েছে।
সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ফিরুজুল ইসলাম জানান, বাজার পরিদর্শনে বের হয়ে বাহাদুর বাজারে জনৈক জ্যোসনা ও আবিদা বানুর কাছে বেশী দামে লবণ বিক্রি করার অভিযোগে আমির ষ্টোরের মালিক সজিবুর রহমান জীবনের ৫০ হাজার টাকা, ক্রেতা শাহিনুর রহমানের অভিযোগে রফিক ষ্টোরের মালিক মাজেদুর রহমানের ১০ হাজার টাকা ও নিউ আজাদ ট্রেডার্সের মালিক মোস্তা হাসান মিঠুর ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় তিনি বলেন, যদি কেউ এ ধরণের গুজব ছড়ানোর অপচেষ্টা করে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। প্রতিটি উপজেলায় ম্যাজিষ্ট্রেটরা বাজার মনিটরিংয়ের খবর পাওয়া গেছে। লবণ নিয়ে গুজবে কাউকে জড়িত পেলে আটক করা হবে। তিনি বলেন এ ধরণের গুজব বন্ধে প্রশাসন, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের লোকজন সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।