mamla-dinajpur24মোঃ ওয়াহেদুর রহমান (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুর শহরে কাঞ্চন কলোনী মহল্লায় পূর্বের জেরকে কেন্দ্র করে আসলামের স্ত্রী আফসারুল কোতয়ালী থানায় মামলা করায় এখন স্ব-পরিবার নিয়ে জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এ ব্যাপারে গতকাল রবিবার বাদীনির স্বামী আসলাম দিনাজপুর সদর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছে। জানা গেছে, দিনাজপুর শহরে কাঞ্চন কলোনী মহল্লায় পূর্বের জেরকে কেন্দ্র করে আজিজের ৩ পুত্র মিজান, জীবন ও মিলন, মৃত: রফিকের ২ পুত্র ভলুয়া ও বারেক সহ ৭/৮ জনের একটি দল দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে মৃত সোলেমান আলীর পুত্র আসলামের বাড়িতে গত ২২ জুলাই অনধিকার প্রবেশ করে ঘরের ভিতর থেকে তার স্ত্রী আফসারুলকে চড়-থাপ্পর মেরে টেনে হেচড়ে বের করে। এরপর তারা দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আফসারুলের মাথায় রক্তাক্ত জখম করে। তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আফসারুল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তৎপর তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে পরনের কাপড় টানা হেচড়া করে বিবস্ত্র করতঃ শ্লীলতাহানী ঘটায়। এতেও তারা ক্ষান্ত হয়নি। আফসারুলের গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন সহ নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এরপর তারা ঘরের ভেতরে সোকেজের গ্লাস সহ আসবাবপত্র ভাংচুর ও বিভিন্ন মালামাল ক্ষতিসাধন করে। আফসারুলের আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসতে দেখে তারা ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে আফসারুল কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং- ৩৫, তাং- ২২/৭/১৬ইং। এই মামলার জেরকে কেন্দ্র করে তারা গত ৫ আগস্ট বাড়ির সামনে আসলামকে দেখতে পেয়ে বলে আদালত থেকে মামলা তুলে না নিলে স্বামী-স্ত্রীকে মেরে লাশ গুম এমনকি রাস্তাঘাটে একা পেলে বড় ধরনের ক্ষতিসাধন করার হুমকি প্রদর্শন করে। এ ব্যাপারে আসলাম কোতয়ালী থানায় একটি জি,ডি করে, যার নং- ৪০৬ তাং- ৭/৮/১৬ইং। পরবর্তীতে তারা আবারও পাহাড়পুর এলাকার ইকবাল স্কুল মোড়ে আসলামকে রাস্তায় একা পেয়ে হুমকি প্রদর্শন করে। ফলে গতকাল ২৮ আগস্ট রবিবার দিনাজপুর সদর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে একটি ১০৭ ধারা মামলা দায়ের করে। এ ব্যাপারে আমাদের প্রতিনিধিকে আফসারুল ও তার স্বামী আসলাম জানায়, অত্র ওয়ার্ডের কাউন্সিল’র মুক্তিবাবু’র কারণে আসামীরা হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন অব্যাহত রেখেছে। বর্তমানে আসলাম তার স্ত্রী সহ সন্তান ও শ্বাশুরীকে নিয়ে জীবনের চরম নিরাপত্তাহীনতায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আশুহস্তক্ষেপ কামনা করছেন আসলাম সহ তার পরিবার।