(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের বিরলে রূপালী বাংলা জুট মিলে বকেয়া বেতনের দাবিতে ভাংচুর করেছে শ্রমিকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা। গুলিতে একজন নিহত ও কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। গতকাল রাত ৯ টায় পৌর শহরের হুসনা নামক রূপালী বাংলা জুট মিলে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হুসনা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর পুত্র সুরত আলী (৩০) বলে জানা গেছে।
জানা যায়, বুধবার বিকালে মিল বন্ধের কোন নোটিশ না পেয়ে চলমান পরিস্থিতিতে শ্রমিকরা বকেয়া বেতনের দাবিতে মিলের অফিসের সম্মুখে অবস্থান নেয়া শুরু করে।
সন্ধ্যা থেকে আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতার চেষ্টা করে সমঝোতা না হওয়ায় ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম আব্দুল লতিফ ঘটনাস্থলে এসে শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে অফিস ভাংচুর শুরু করলে বিরল থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি ও টিয়ারসেল ছুড়ে। এ রিপোর্ট লেখাকালীন নিহতের লাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ছিল। পরিস্থিতি থমথমে হওয়ায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ সবুজার সিদ্দিক সাগর ও সাধারণ সম্পাদক রমা কান্ত রায় শ্রমিকদের বিচারের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা শান্ত হয়।