(দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুরে নির্বাচনী সহিংসতার মামলায় আত্মসমর্পনকারী জামায়াত-বিএনপি-শিবিরের ২৩জন নেতাকর্মীকে বিচারক জামিন না দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ প্রদান করেছেন।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে দিনাজপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শ্যাম সুন্দর রায়ের আদালতে কাহারোল উপজেলার ছাত্রশিবিরের সভাপতি জুলফিকার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব, ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি জহুরুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক হজরত আলীসহ বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের ২৩ জন নেতাকর্মী ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনী সহিংসতার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আত্মসমর্পন করেন। বিজ্ঞ বিচারক তাদের জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। কাহারোল কলেজের প্রভাষক সফিকুল ইসলাম গত বছর ৫ জানুয়ারীর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কাহারোল উপজেলার গড়নুরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। দায়িত্ব পালন করার সময় আসামীরা ভোট কেন্দ্রে অবৈধভাবে প্রবেশ করে ব্যালট বাক্স ও ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালিয়ে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানোর মাধ্যমে ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। এই ঘটনায় প্রভাষক সফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে কাহারোল থানায় মামলা করেন। পুলিশ মামলাটি তদন্ত করে নিয়মিত ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক ২টি অভিযোগপত্র গত ২ জুন আদালতে পেশ করেন। বিচারক অভিযোগপত্রে ৫২ জন আসামীর মধ্যে পালিয়ে থাকা ২৩ জন আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। পলাতক ২৩ জন আসামী মঙ্গলবার দুপুরে আত্মসমর্পণ করলে বিচারক উক্ত আদেশ প্রদান করেন। -(মোঃ রিয়াজুল ইসলাম)