দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম

(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে নারী ঘটিত কেলেঙ্কারী সম্পর্কে গতকাল DC Dianjpur ফেইসবুক পেইজ এ ডিসি যা তিনি লিখেছেন তা হুবহু তুলে ধরা হলো।

প্রকাশ থাকে যে, গতকাল যমুনা টিভি থেকে শুরু করে ঢাকার জাতীয় দৈনিক অনলাইনগুলো, প্রায় ২০০টি ওয়েব সাইট সহ দিনাজপুর২৪.কম এ একটি খবর প্রকাশ পায়। খবরটির জের ধরে দিনাজপুরে ডিসি-শিক্ষিকার দু রকম ভিডিওতে ধ্রুম্যজাল সৃষ্টি হয়। যা সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হয়। আসলে কোনটি সঠিক আর কোনটি বে-ঠিক?
সুধী মহল মনে করেন, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম তিনি একজন সম্মানিত ব্যক্তি। তার বিরুদ্ধে চরিত্র হননের চেষ্টা করলেও ডিসি কেন এতদিন কোন প্রকার আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। দিনাজপুরবাসী জানে শুধু দিনাজপুর জেলা প্রশাসকই নন দিনাজপুরে কর্মরত সরকারি সকল উর্দ্ধতন কর্মকর্তা দিনাজপুরে ভদ্র এবং গর্বিত ব্যক্তি। কিন্তু প্রায় মাস দুয়েক আগের ঘটনা ঘটলেও জেলা প্রশাসক কেন ব্যবস্থা নেননি বিষয়টি সুধী মহল সহ সকালের কাছে ধ্রুম্যজালের সৃষ্টি হয়েছে। যমুনা টিভির সূত্র ধরে দিনাজপুর২৪.কম এ সংবাদটি প্রকাশ হওয়ায় দিনাজপুর২৪.কম এর সম্পাদক সহ পরিবার দুঃখ প্রকাশ করেছে।
সুধী মহল বলছেন, সাংবাদিকদের ভয়ভীতি না দেখিয়ে বা বিভ্রান্ত না করে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক দ্রুত সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি পরিস্কার করে জেলাবাসীকে সত্যটা প্রকাশ করবেন। দিনাজপুর জেলাবাসীও এমনটা প্রত্যাশা করেন।