স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে হাড় কাঁপানো তীব্র শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন গরিব মানুষ। এ অবস্থায় অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষকে রক্ষায় ৮০ হাজার শীতবস্ত্র চেয়ে জরুরিবার্তা পাঠিয়েছে প্রশাসন বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, দিনাজপুরে তাপমাত্রা কমতে কমতে সোমবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে এসেছে। দিনাজপুর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস জানান, গত চলতি মাসের ডিসেম্বরে দিনাজপুরসহ এই অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়। এর পর দিনাজপুরে তাপমাত্রা কমতে শুরু করে। বুধবার থেকে এই শৈত্যপ্রবাহ তীব্র আকার ধারণ করে। এবার শীতের শুরুতেই শীতের এত তীব্রতা অনুভত হচ্ছে। যা গত কয়েক বছরের রেকর্ড ভঙ্গ করে।
২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারি ও ১৯৪৮ সালে ৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। গত বছর শীত মৌসুমে দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বলে উল্লেখ করেন তোফাজ্জল হোসেন।
এদিকে তীব্র শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। অসহনীয় দুর্ভোগে পড়েছেন ছিন্নমূল ও নিম্নআয়ের মানুষ। প্রচন্ড শীতে কাজ করতে পারছেন না শ্রমজীবী মানুষ।
দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম জানান, অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষের জন্য ইতোমধ্যে কিছু কম্বল দেয়া শুরু হয়েছে। শীত বেড়ে যাওয়ায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আরও ৮০ হাজার শীতবস্ত্র চেয়ে জরুরি বার্তা পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
জেলা প্রশাসক দুস্থ, দরিদ্র ও অসহায় মানুষকে শীত নিবারণের জন্য প্রশাসনের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।