(দিনাজপুর২৪.কম) বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল পার্বতীপুর থেকে পঞ্চগড়, কাঞ্চন থেকে বিরল, বিরল থেকে বিরল বর্ডার রেলপথ প্রায় ১৫০ কি. মি. মিটার গেজ থেকে ডুয়েল গেজ ও ব্রডগেজ সেকশনে রূপান্তর। ১৩১টি ছোট ও ৮টি বড় রেলপথে ব্রীজ পুনঃ নির্মাণ, ১৪টি রেল স্টেশন মেরামত, সংস্কার ও পুনঃ নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে। চলতি মাসে মধ্যবর্তী সময়ে দিনাজপুর থেকে আন্তনগর ট্রেনগুলো ডুয়েলগেজে ঢাকা সহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলে যাত্রীসেবা নিশ্চিতের মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে। এই প্রকল্পের কাজ শেষ হলে বিরল বর্ডার ও রাধিকাপুর রেলষ্টেশনের মাধ্যমে বিরল স্থল বন্দর চালু হয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। ফলে বাংলাদেশ ও ভারতের ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে নতুন দ্বার উন্মোচন হবে ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পের ৫টি প্যাকেজ গত ২০১১ সালের ফেব্র“য়ারি প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। এই ৫টি প্যাকেজের মধ্যে ৩টি প্যাকেজ তমা কনস্ট্রাক্টশন ও তার সহযোগী ২টি প্রতিষ্ঠান যথাক্রমে ঐঈওখ-ঝঊখঔঠ ও এজওখ-ঞঈঈখঔঠ বাকি ২টি প্যাকেজের মধ্যে ১টি ম্যাক্স ওঘঋজটঝঞজটঈ- ঞটজঊ লিঃ এবং আরেকটি প্যাকেজের কাজ পায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স চইখ-ঝঝঊঈখঔই। তমা কনস্ট্রাক্টশন ও তার ২ সহযোগী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্পের ৯০ কিঃমিঃ রেলপথের মধ্যে ১৩১টি ছোট ব্রীজ ও ৩টি বড় ব্রীজ পুনঃ নির্মাণ ও মন্মমথপুর, চিরিরবন্দর, কাউগাঁও, কাঞ্চন, বিরল, মঙ্গলপুর, সেতাবগঞ্জ, পীরগঞ্জ এবং ভোমরাদহ রেল ষ্টেশন পুনঃ নির্মাণ। এছাড়া দিনাজপুর, বাজনাহার ও সুলতানপুর ষ্টেশনের প্লাটফর্ম পুনঃ নির্মাণ। পার্বতীপুর থেকে ভোমরাদহ, কাঞ্চন থেকে বিরল পর্যন্ত মিটার গেজ থেকে ডুয়েল গেজ সেকশনে রূপান্তর ও বিরল থেকে বিরল বর্ডার মিটার গেজ থেকে  ব্রড গেজ  সেকশনে রূপান্তর। ম্যাক্স ওঘঋজটঝঞজটঈঞটজঊ লিঃ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি ভোমরাদহ থেকে পঞ্চগড় রেলষ্টেশন প্রায় ৬০ কিঃমিঃ রেলপথে পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও রেলষ্টেশন দ্বিতল ভবন নির্মাণ। এই ৬০ কিঃমিঃ রেলপথে ব্রীজ সহ মিটারগেজ থেকে ডুয়েলগেজ সেকশনে রূপান্তর। মেসার্স চইখ-ঝঝঊঈখঔই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান উক্ত রেলপথে ৫টি বড় ব্রীজ পুনঃ নির্মাণ। বর্তমানে মেসার্স চইখ-ঝঝঊঈখঔই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ১৭/এম ব্রীজের পুনঃ নির্মাণ কাজ চলতি মাসে শেষ হলে ৫টি প্যাকেজের কাজ সম্পন্ন।  সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, পার্বতীপুর থেকে পঞ্চগড়, কাঞ্চন থেকে বিরল মিটার গেজ থেকে ডুয়েল গেজ সেকশনে রূপান্তর। বিরল থেকে বিরল বর্ডার ব্রজগেজ সেকশনে রূপান্তর। এই প্রকল্পের আওতায় ১৫০ কি. মি. রেলপথে ১৪টি রেলষ্টেশন ১৩১টি ছোট ব্রীজ ও ৮টি বড় ব্রীজ পুনঃ নির্মাণ ও অন্যান্য স্টেশনগুলো মেরামত, সংস্কার, পুনঃ নির্মাণ। প্রকল্পের কাজ শেষে আন্তঃনগর ট্রেন সহ অন্যান্য ট্রেন মিটার গেজ থেকে ডুয়েল গেজ দিয়ে নিয়মিত চলাচল করবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ৫টি প্যাকেজের কাজ বর্তমানে শেষ প্রান্তে। ৮টি বড় ব্রীজের মধ্যে ৭টির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে বাকি ১টি ব্রীজের নির্মাণ কাজও শেষ হবার পথে। বর্তমানে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নব নির্মিত রেল ব্রীজের উপর দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। ১৭/এম ব্রীজের নির্মাণ কাজ শেষ হলেই প্রকল্পের ৫টি প্যাকেজের কাজ সম্পন্ন হবে। বাংলাদেশ রেলওয়ে দিনাজপুর দায়িত্বরত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, প্রকল্পের কাজ নিয়মিত তদারকি ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় ৫টি প্যাকেজের কাজ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সুন্দর সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় সম্পন্ন হয়েছে। তিনি বলেন, অতি শীঘ্রই প্রাথমিকভাবে দিনাজপুর থেকে ঢাকা পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ট্রেন চালু হবে এবং পঞ্চগড় থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ডুয়েল গেজ ট্রেন চালুর করার বিষয়ে অতি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের পরিকল্পনা বাংলাদেশ রেলওয়ের আছে।

এ অঞ্চলের জনগণের দাবী নতুন লাল-সবুজ ট্রেন ডুয়েল গেজ রেলপথ দিয়ে চালুর মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন করা হয়। এ অঞ্চলের দীর্ঘদিনের কাক্সিক্ষত স্বপ্ন পূরণের জন্য তারা সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তথা রেলমন্ত্রী সহ প্রধানমন্ত্রীর জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। -মোঃ ওয়াহেদুর রহমান