(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে ডিবি পুলিশের সাথে স্থানীয় এলাকাবাসির সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৪ পুলিশসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।
রোববার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে দিনাজপুর সদর উপজেলার রামসাগর এলাকার মহব্বতপুর হাজীর মোড়ে এই সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার প্রতিবাদে এলাকাবাসী গাছেরগুড়ি ও ইট ফেলে রাস্তা অবরোধ করে রাখে। পরে পুলিশে সুপারের আশ্বাসের প্রেক্ষিত স্থানীয়রা রাত ৯টার দিকে অবরোধ তুলে নেয়।
এলাকাবাসি জানায়, প্রায়ই ডিবি পুলিশ রামসাগর এলাকায় সাধারণ মানুষকে টাকার জন্য নাজেহাল করে আসছিল। রোববার বিকেলে মাদক ব্যবসাকে না বলে শপথগ্রহনকারী মহব্বতপুর গ্রামের তসলিম উদ্দিনের ছেলে নুরুজ্জামান (২২) রামসাগর এলাকায় হাজী মোড় এলাকায় সার কারখানা সামনে মহিষ চরাচ্ছিল। এ সময় ডিবি পুলিশের একটি দল তার কাছে টাকা দাবী করে ও জোড় করে গাড়ীতে তোলার চেষ্টা করে।
ডিবি পুলিশের কথা মত যুবক নুরুজ্জামান গাড়ীতে উঠতে ও টাকা দিতে অস্বীকার করায় ডিবি পুলিশ তাকে মারধর করে। এ ঘটনা দেখে ওই এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে ডিবি পুলিশের কাছে ঘটনা কারণ জানতে চায়। এ সময় ডিবি পুলিশের সাথের এলাকাবাসির কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ডিবি পুলিশের সাথে সংঘর্ষ বাধে। অবস্থা বিগতিক দেখে ডিবি পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।
সন্ধ্যায় ১৫ সদস্যের ডিবি পুলিশের একটি দল আবারো ওই এলাকায় এসে এলোপাথাড়ি লাঠিচার্জ করে। এই ঘটনায় এলাকাবাসি ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠিসটা নিয়ে ডিবি পুলিশর উপর হামলা চালায়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ডিবি পুলিশের দলটি আবারো ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে আসে। এই সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ পুলিশ সদস্য, নারী ও শিশুসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়।
দিনাজপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। দায়ী ডিবি পুলিশের সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।