(দিনাজপুর২৪.কম) ১৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার ভোরে দিনাজপুর উত্তর বালুবাড়ী কিলখানার বাসিন্দা মোঃ আকবর হোসেনের পুত্র বুদ্ধি প্রতিবন্ধী রাজা (৩৩) ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়। খবর পেয়ে নিহত রাজার পিতা ঘটনা স্থলে গেলে তার উপস্থিতিতে পূনরায় ২টি ট্রেনপুত্রের খন্ডিত লাশের উপড় দিয়ে চলে যায় এবং দেহের বিভিন্ন অংশ আশেপাশে ছিটকে পড়ে। সেখানকার লাইন খালাসী মোঃ ইলিয়াস দায়িত্বে থাকা অবস্থায় খন্ডিত লাশের টুকরোগুলো না সরিয়ে ঘটনাস্থলে দীর্ঘ ৩ঘণ্টা বসে সময় কাটিয়েছেন ও অন্য কোন ব্যক্তিদের দ্বারা খন্ডিত লাশের টুকরোগুলো সরানোর জন্য চেষ্টা করেনি এবং নিহত রাজার পিতা ঘটনাস্থলে আসলে তাকেও সহযোগিতা করেনি দায়িত্বে থাকা লাইন খালাসী মোঃ ইলিয়াস নির্বাক হয়ে চেয়ে ছিলেন নিহত রাজার পিতা আকবর হোসেন।
পিতার সামনে নিহ পুত্রের খন্ডিত টুকরো গুলোর উপর দিয়ে ২টি ট্রেন যাওয়া-আসা করল কেউ এগিয়ে না আসায় নির্বাক হতবম্ভ পিতা বলেন, মানুষের মনুষ্যত্ব হারিয়ে গেছে, আমার পুত্রের খন্ডিত লাশ উদ্ধারে কেউ এগিয়ে এল না।
এ ব্যাপারে দিনাজপুর জিআরপি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ এরশাদুল হক ভুঁইয়া এ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন, নিহতের পরিবার লাশ নেওয়ার ব্যাপারে লিখিত দরখাস্ত করলে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, সকাল ৬টায় ৭৬৮ নং দোলনচাঁপা এক্সপ্রেসে ট্রেনে কাটা পড়ে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী রাজা মৃত্যুবরণ করে। পরবর্তীতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়মুখী ৭৭৩ নং পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনে পুনরায় কাটা পড়ে। এরপর দিনাজপুর থেকে বুড়িমারী মুখী ৮০৩ নং কমিউটার ট্রেনে আবারও কাটা পড়ে। ফলে লাশ ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটে শেখপুরা ১৭নং রেলঘুমটি সংলগ্ন ৪০৭/৪-৫ এলাকায়। এ ব্যাপারে দিনাজপুর জিপআরটি থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। যার নং-৭ তাং-১৩/০২/২০২১।