দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলালর নশরতপুর ইউনিয়নে টাকা ছাড়া আনসার-ভিডিপির প্রশিক্ষণ মিলছেনা এমন অভিযোগ করেছেন ওই ইউনিয়নের ভুক্তভোগিরা। সুত্র জানায়, উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের রাণীরবন্দর মহিলা কলেজে গ্রাম ভিত্তিক আনসার ভিডিপির মৌলিক প্রশিক্ষণ গত ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হয়। ১নং নশরতপুর ইউনিয়নের আনসার ভিডিপির লিডার মোঃ খোদা বকস্ উপজেলা আনসার ভিডিপির কর্মকর্তা যোগসাযশে ৬৪জন পুরুষ-মহিলা প্রশিক্ষণার্থীদের প্রতিজনের নিকট থেকে ৫০০ টাকা করে গ্রহণ করে। আরো জানা গেছে, আগামীতে জেলায় অস্ত্র প্রশিক্ষণের (রাইফেলস্) জন্য ৬’হাজার করে টাকা দিতে হবে। কোরবানী ঈদের পরে সমাপনী প্রশিক্ষণ সমাপ্ত হবে। এ বিষয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের সাথে কথা হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক অনেকে জানান, ইউনিয়ন লিডার মোঃ খোদা বকস বলে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করতে খরচ আছে। তাই প্রত্যেতে ৫০০ টাকা করে দিতে হবে এবং প্রশিক্ষণ শেষে ১হাজার ৯০০ টাকা করে টাকা পাবে। যারা টাকা দিতে অস্বীকার করে তাদেরকে প্রশিক্ষণে নেয়া হয়নি। এমন অভিযোগ করেন রাণীপুর গ্রামের আজিজারের পুত্র শফিকুলের। এ বিষয়ে উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা আবু সাঈদের সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি। প্রশিক্ষণার্থীরা সত্যতা যাচাই পূর্বক ইউনিয়ন ও উপজেলা কর্মকর্তার দৃষ্টান্ত মূলক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে উদ্ধর্তন কর্মকর্তার নেকদৃষ্টি কামনা করেছেন।