স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টির ত্রাণ নিয়ে তুলকালাম কান্ড ঘটেছে। ত্রাণ বন্টনে যোগ্য লোক না থাকায় অনেক অসহায়, গরীব পরিবার আজ রোববার ত্রাণ পায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। মাটি হয়ে গেছে অনেকের আগামীকাল সোমবার পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ।
ঘটনার প্রকাশ, দিনাজপুর শহরের পুলহাটস্থ একটি মিল চাতালে দিনাজপুরে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টির স্লিপের মাধ্যমে ত্রাণ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দিনাজপুরে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টির মনোনীত কিছু ব্যক্তির হয়রানি এবং খারাপ আচরণের কারণে অনেকে ত্রাণ না নিয়ে ফেরত আসেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগী জানান, পুলহাটে একটি মিলে বিকেল ৫টায় প্রবেশ করি ত্রাণের কোন আয়োজন না হলেও অফিসে গিয়ে ত্রাণের কথা বলি। এরপর ত্রাণের দেওয়া স্লিপ দেখাই। আমাকে ত্রাণ দেওয়া হয়নি। অনেকে আবার জাতীয় পরিচয়পত্র ও স্লিপ নিয়ে গেলেও তাদের নানা ভাবে অপমান করা হয়। বাধ্য হয়ে ত্রাণ না নিয়েই বাসায় চলে যায় অনেকে। সবচেয়ে খারাপ ব্যবহার করেন জনৈক শামসুল নামক অফিসের এক ব্যক্তি। অনেকের বাবা-মা অসুস্থ্য। স্লিপ ও জাতীয় পরিচয়পত্র তার সন্তান নিয়ে গেলেও তারা ফিরে আসেন খালি হাতে। জনৈক শামসুল সহ উক্ত অফিসের লোকজন বলেছে অসুস্থ্য হউক আর যেই হউক ঐ ব্যক্তি ছাড়া আমরা ত্রাণ দেবো না বলে অপমান করে তাড়িয়ে দেন।
দিনাজপুরে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টির দেয়া ত্রাণ না পাওয়ায় আগামীকাল পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনটি অসহায়, গরীব মানুষের মাটি হয়ে গেছে। জনৈক শামসুলের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি উপর মহলের সাথে কথা বলতে বলেন। ত্রাণ নিয়ে এ রকম তুলকালাম কান্ড বিষয়ে দিনাজপুরে চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টির দিনাজপুর সভাপতি সুজা উর রব চৌধুরীর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি বলেন, এগুলো বিষয় নিয়ে আপনার সাথে আমার কথা বলার সময় নেই ব্যস্ত বলে ফোনটা কেটে দেন।